অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

গাজা থেকে ইসরাইলে অগ্নি-বেলুন ছাড়ার পর, ইসরাইলি সামরিক বাহিনীর পাল্টা অভিযান


ফাইল ফটো : ইসরাইলি আক্রমণে গাজা সিটির ধ্বংসাবশেষ (এপি)

ইসরাইলি সামরিক বাহিনী বলছে তারা হামাসের  সামরিক অঙ্গনে এবং একটি রকেট নিক্ষেপনের স্থানে এই আক্রমণ চালিয়েছে। ‘এর আগে ইসরাইলে চারটি অগ্নিসংযোগকারি বেলুন ছাড়া হয় এবং তাতে ভূমিতে আগুন লেগে যায় , কৃষি ক্ষেত্রও ক্ষতিগ্রস্ত হয়। তবে ইসরাইল কিংবা গাজায় কারও হতাহতের কোন খবর এখনও পাওয়া যায়নি। এ ব্যাপারে হামাস কোন তাত্ক্ষণিক মন্তব্য করেনি।

ইসরাইলের সামরিক বাহিনী বলছে গাজা থেকে ইসরাইলে অগ্নি-সংযোগকারী বেলুন ছাড়ার পর শনিবার সকালে ইসরাইলি যুদ্ধ জাহাজগুলো গাজা ভূখন্ডের দুটি লক্ষ্যস্থলে আঘাত হেনেছে। ইসরাইলি সামরিক বাহিনী বলছে তারা হামাসের সামরিক অঙ্গনে এবং একটি রকেট নিক্ষেপনের স্থানে এই আক্রমণ চালিয়েছে। ‘এর আগে ইসরাইলে চারটি অগ্নিসংযোগকারি বেলুন ছাড়া হয় এবং তাতে ভূমিতে আগুন লেগে যায় , কৃষি ক্ষেত্রও ক্ষতিগ্রস্ত হয়। তবে ইসরাইল কিংবা গাজায় কারও হতাহতের কোন খবর এখনও পাওয়া যায়নি। এ ব্যাপারে হামাস কোন তাত্ক্ষণিক মন্তব্য করেনি।

ইসরাইলি সংবাদ মাধ্যম জানিয়েছে শুক্রবার বিকেলে গাজা ভূখন্ডের কাছে চারটি অগ্নিসংযোগকারি বেলুন এসে পড়লে সেখানে আগুন ধরে যায়। হামাস ও ইসরা্লের মধ্যে ১১ দিনের যুদ্ধের দু মাসেরও অধিক সময়ের পর এই বেলুন নিক্ষেপের ঘটনাটি ঘটলো। যুদ্ধ শেষ হবার পরও ইসরাইল ঐ অঞ্চলের প্রতিবন্ধক শিথিল করার ব্যাপারে তেমন কিছুই করেনি এবং চাপ প্রয়োগের কৌশল হিসেবে হামাস এই রকম বেলুন ব্যবহার করছে।

ইসরাইলের নতুন প্রধানমন্ত্রী, নাফতালি বেনেট এই বেলুন ওড়ানোকে রেকট নিক্ষেপের সঙ্গে তূলনা করেছেন। ইসরাইল ও মিশর গাজার বিরুদ্ধে প্রতিবন্ধকতা বজায় রেখেছে যার মধ্যে রয়েছে ঐ অঞ্চলের উপকুল এবং আকাশসীমার উপর ইসরাইলি নিয়ন্ত্রণ এবং লোকজন ও পণ্য চলাচলের উপর নিষেধাজ্ঞা বহাল রয়েছে।

ইসরাইল বলছে হামাসকে অস্ত্রে সজ্জিত হওয়া থেকে থামানোর জন্য এই নিষেধাজ্ঞার প্রয়োজন আছে তবে সমালোচকরা বলছেন এই সব পদক্ষেপ সম্মিলিত শাস্তিরই নামান্তর।

XS
SM
MD
LG