অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

ভারতের উত্তরাখণ্ডের পুণ্যতীর্থ হরিদ্বারে মহাকুম্ভ মেলা চলছে


ভারতের উত্তরাখণ্ডের পুণ্যতীর্থ হরিদ্বারে যে মহাকুম্ভ মেলা চলছে, তাতে আজ ছিল তৃতীয় শাহী স্নানের দিন। হিন্দু ভক্তদের বিশ্বাস, এই পূণ্য লগ্নে গঙ্গাস্নানে পাপমুক্তি হয়। তাই লক্ষ লক্ষ পুণ্যার্থী হর কি পৌরি ঘাটে গঙ্গায় স্নান করে পাপ মুক্তির প্রার্থনা করেছেন, আর সেই সঙ্গে তাাঁরা চিন্তা বাড়িয়েছেন প্রশাসনের। কারণ ইতিমধ্যেই ৩৫ লক্ষ লোক হরিদ্বারে সমবেত হয়েছেন বলে খবর। তাঁদের মধ্যে যতজনকে পরীক্ষা করা হয়েছে, তাতেই ১০০২ জনের করোনা পজিটিভ ধরা পড়েছে। সোমবারে ৪০৮ আর মঙ্গলবারে ৫৯৪ জন।

এ ব্যাপারে সারা ভারতে সমালোচনার ঝড় উঠেছে। বলা হচ্ছে, উত্তরাখণ্ডের সরকার করোনা রোধ করতে ব্যর্থ, কিন্তু করোনার প্রসার ঘটেছে তাদেরই অবহেলার কারণে। এই কুম্ভ মেলার ভক্তদের জমায়েতকে গত বছর দিল্লিতে নিজামুদ্দিন মারকাজের জমায়েতে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বৃদ্ধি এবং সারা ভারতে তাঁদের ছড়িয়ে পড়া নিয়ে যে প্রচণ্ড ভীতির সঞ্চার হয়েছিল, তার সঙ্গে তুলনা করা হচ্ছে।

ভারতের উত্তরাখণ্ডের পুণ্যতীর্থ হরিদ্বারে মহাকুম্ভ মেলা চলছে
please wait

No media source currently available

0:00 0:01:54 0:00
সরাসরি লিংক

উত্তরাখণ্ডের মুখ্যমন্ত্রী তিরথ সিং রাওয়াত অবশ্য এই দুইয়ের মধ্যে তুলনা মানতে নারাজ। তিনি বলেছেন, নিজামুদ্দিন মারকাজ হয়েছিল বন্ধ জায়গায় একটা বাড়ির মধ্যে। আর কুম্ভ মেলা হচ্ছে খোলা আকাশের নীচে গঙ্গার ঘাটে। তা ছাড়া নিজামুদ্দিন মারকাজ যখন হয়েছিল তখন করোনা সম্পর্কে মানুষের এত সচেতনতা ছিল না। এখন সচেতনতা অনেক বেড়েছে। কুম্ভ মেলা বারো বছরে একবার মাত্র হয়। সুতরাং মানুষের ধর্মবিশ্বাস ও ভক্তিভাবে আঘাত দেওয়া যায় না। পুলিশও বলেছে, এত ভিড়ের মধ্যে সামাজিক দূরত্ব বিধি জোর করে বলবৎ করতে গেলে পদপিষ্ট হয়ে বহু লোকের মৃত্যুর আশঙ্কা ছিল। যাই হোক না কেন, এই মুহূর্তে ভক্তির প্রকাশের সঙ্গে সঙ্গে করোনা রোগের জীবাণুও যে প্রকাশিত হচ্ছে, তা স্পষ্ট বোঝা যাচ্ছে।

XS
SM
MD
LG