অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

মৌলবাদী হামলার প্রতিবাদে মর্মস্পর্শী ফেসবুক পোস্ট বাংলাদেশ ক্রিকেট তারকা মাশরাফির


মাশরাফি বিন মোর্তাজা- ফাইল ফটো- এপি

বাংলাদেশের নানা জেলায় সংখ্যালঘু হিন্দুদের উপর মৌলবাদীদের হামলা, ধর্মীয় উপাসনা স্থানে নির্বিচার তান্ডব নিয়ে এবার ফেসবুকে মর্মস্পর্শী পোস্ট দিলেন ক্রিকেট তারকা মাশরাফি বিন মোর্তাজা।

বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের প্রাক্তন অধিনায়ক লিখেছেন, “কাল দু’টি হার দেখেছি। একটা বাংলাদেশ ক্রিকেট দল, যেটায় কষ্ট পেয়েছি। আর একটি পুরো বাংলাদেশের, যা হৃদয় ভেঙ্গে চুরমার করেছে। এ লাল সবুজ তো আমরা চাইনি। কত কত স্বপ্ন, কত কষ্টার্জিত জীবন যুদ্ধ এক নিমিষেই শেষ। আল্লাহ আপনি আমাদের হেদায়েত দিন।”

ঘটনা নির্দিষ্ট না করলেও এ কথা বুঝতে অসুবিধা হছে না মাশরাফি কি বোঝাতে চেয়েছেন। আপাতত বাংলাদেশের নাগরিকদের একটা বড় অংশের উদ্বেগের বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে সংখ্যালঘুদের উপর হামলার ঘটনা। এবার তা নিয়ে মুখ খুললেন মাশরাফি। বোঝাতে চেয়েছেন, ক্রিকেট একটা খেলা। সেখানে নিজের দেশ হারলে কষ্ট হবেই। তবু সেটা মেনে নেওয়া যায়। কিন্তু বাংলাদেশ সম্পর্কে যে বার্তা সারা দুনিয়ায় ছড়িয়ে পড়ল এই ক’দিনে তা সমগ্র বাংলাদেশের হার।

মাশরাফির এই পোস্টের নীচে ভিন্ন ধরনের কমেন্ট এসেছে। উগ্রবাদী কেউ কেউ এসে লিখেছেন, যা হয়েছে ভাল হয়েছে। আবার কেউ কেউ লিখেছেন, ক্রিকেটের হার আর সংখ্যালঘুদের উপর নির্যাতন—কোনওটাই আসল বাংলাদেশ নয়। নতুন করে যেন বাংলাদেশ উঠে দাঁড়ায় সেই প্রার্থনা জানিয়েছেন। জনৈক সুমন আজহার লিখেছেন, “প্রিয় ক্যাপ্টেন, আপনার মতো সোনার ছেলে জন্ম নিক ঘরে ঘরে।” বাংলাদেশের মহিলা ক্রিকেট দলের খেলোয়াড় জান্নাতুল ফিরদৌস রুহি লিখেছেন, “এমন বাংলাদেশ চাই না যেখানে ধর্মের দোহাই দিয়ে উগ্রতার পদতলে, মানবতা, সভ্যতা, বিবেক।”

তবে মাশরাফির পোস্টের নীচে অনেকেই শেখ হাসিনা সরকারের সমালোচনা করেছেন। তাঁদের বক্তব্য, প্রশাসন যদি সতর্ক থাকত, যথাযথ ব্যবস্থা নিত তাহলে এই পর্যায়ে উন্মত্ততা পৌঁছতো না। মাশরাফি ক্রিকেট ছাড়ার পর এখন আওয়ামী লীগের সাংসদ। তাঁর দলই এখন বাংলাদেশের শাসন ক্ষমতায়।

XS
SM
MD
LG