অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

চার দশক পর কলকাতা ফুটবল লীগে চ্যাম্পিয়ন হলো মহামেডান


মহামেডান স্পোর্টিং

কলকাতার তিন প্রধান বলা হলেও সেই তালিকা থেকে মহামেডান স্পোর্টিং ক্রমশই বিলীন হচ্ছিল। কিন্তু শেষ পর্যন্ত তারা ঘুরে দাঁড়ালো। চার দশক পর কলকাতা লীগ চ্যাম্পিয়ন হল মহামেডান স্পোর্টিং। ত্রিনিদাদ টোবাগোর স্ট্রাইকার মার্কাস জোসেফের গোলে ফাইনালে রেলওয়ে এফসিকে হারাল সাদা-কালো ব্রিগেড।

এদিন খেলার শুরুতেই গোল তুলে নেয় মহামেডান স্পোর্টিং। ফয়জল থেকে বল যায় বৌমাসের কাছে। ছোট্ট স্লাইডিং থেকে বল পান মার্কাস জোসেফ। সেই সুযোগকেই কাজে লাগিয়ে সাদা-কালো গ্যালারিতে রঙের ছোঁয়া লাগালেন এই ফুটবলার। ম্যান অফ দ্য ম্যাচও হয়েছেন তিনি।

তবে এদিন সারা ম্যাচ দুরন্ত ফুটবল খেলে রেলওয়ে এফসিও। সুকুরাম সর্দার, সৌরেন দত্তরা একাধিক আক্রমণ হানে মহামেডান বক্সে। কিন্তু ফল বের করতে পারেননি তারা।

১৯৮১ সালে শেষবার কলকাতা লীগ চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল মহামেডান। সেই টিম ছিল স্বপ্নের। সেবার সাদা-কালো জার্সি গায়ে খেলেছিলেন মানস ভট্টাচার্য, প্রশান্ত বন্দ্যোপাধ্যায়, প্রসূন বন্দ্যোপাধ্যায় এবং অলক মুখোপাধ্যায়। তারপর মহামেডান ক্রমশ হারিয়ে যেতে থাকে। ইস্টবেঙ্গল ও মোহনবাগানের আস্ফালন, আর্থিক প্রতিপত্তির সামনে কার্যত ক্লাব টিকিয়ে রাখাই চ্যালেঞ্জ ছিল সাদা-কালোর। সেই চ্যালেঞ্জ জিতে একুশের কলকাতা লীগ ঢুকল সাদা-কালো তাঁবুতে। এদিন তাই সমর্থকদের উচ্ছ্বাসও বাঁধ ভাঙা। শেষ বাঁশি বাজতেই যুবভারতীর গ্যালারি থেকে ঝাঁকে ঝাঁকে সমর্থক মাঠে নেমে পড়েন খেলোয়াড়দের একবার ছোঁয়ার জন্য।

XS
SM
MD
LG