অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

মুহিবুল্লাহ হত্যাকাণ্ডে একজনের স্বীকারোক্তি, আরো কয়েকজন গ্রেফতার


নিহত রোহিঙ্গা নেতা মুহিবুল্লাহ- ফাইল ফটো- এএফপি

রোহিঙ্গা নেতা মুহিবুল্লাহ হত্যাকাণ্ডে জড়িত সন্দেহে গ্রেপ্তার এক আসামি মোহাম্মদ ইলিয়াছ স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন। রোববার দুপুরে কক্সবাজারের চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক হেলাল উদ্দিন ১৬৪ ধারায় তার জবানবন্দি রেকর্ড করেন বলে জেলা পুলিশ সুপার মো. হাসানুজ্জামান নিশ্চিত করেছেন। তবে জবানবন্দিতে ওই আসামি ঠিক কেমন বর্ণনা দিয়েছে তা প্রকাশ করা হয়নি। কোনো ঘটনার সঙ্গে জড়িত আসামিরা দোষ স্বীকার করে নিলে ১৬৪ ধারায় তার জবানবন্দি রেকর্ড করা হয়।

গত ২৯শে সেপ্টেম্বর রাতে কক্সবাজারের উখিয়ার লম্বাশিয়া ক্যাম্পে গুলি করে আরাকান রোহিঙ্গা সোসাইটি ফর পিস অ্যান্ড হিউম্যান রাইটসের চেয়ারম্যান মুহিবুল্লাহকে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা। পরের দিন মুহিবুল্লাহর ছোট ভাই হাবিবুল্লাহ বাদী হয়ে অজ্ঞাতনামা সন্ত্রাসীদের আসামি করে উখিয়া থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। এই হত্যাকাণ্ডের পর ক্যাম্পে অভিযান চালায় আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। হত্যাকাণ্ডে জড়িত সন্দেহে এ পর্যন্ত অন্তত ৫ জন রোহিঙ্গাকে গ্রেপ্তার করার তথ্য জানিয়েছে পুলিশ। গত ৩রা অক্টোবর কুতুপালং রোহিঙ্গা ক্যাম্প-৫ এ অভিযান চালিয়ে মোহাম্মদ ইলিয়াছকে গ্রেপ্তার করে আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন (এপিবিএন)। এরপর তাকে তিন দিনের রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করে উখিয়া থানা পুলিশ।রিমান্ড শেষে রোববার তিনি আদালতে জবানবন্দি দেন।

কক্সবাজারের পুলিশ সুপার মো. হাসানুজ্জামান সংবাদ মাধ্যমকে জানিয়েছেন, যে ৫ জন আসামিকে গ্রেপ্তার করে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে। তাদেরকাছ থেকে হত্যাকাণ্ডের বিষয়ে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পাওয়া গেছে। কয়েকজন হত্যাকারীকে শনাক্ত করা গেছে। তাদের ধরতে ক্যাম্পে অভিযান পরিচালনা করছে আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী।

XS
SM
MD
LG