অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

ভারতের কানপুরে মুসলিম রিকশাওয়ালার উপর নির্যাতন: বজরং দলের তিন সদস্য গ্রেপ্তার


উত্তরপ্রদেশে হিন্দু ও মুসলমানদের মধ্যে ঘৃণার আবহ সৃষ্টির বিরুদ্ধে দুই সম্প্রদায়ের মানুষের প্রতিবাদ সমাবেশ। ছবি: রয়টার্স

ভারতের উত্তরপ্রদেশের কানপুর শহরে একজন মাঝবয়সী গরিব মুসলমান রিকশাওয়ালাকে মারধর, টানতে টানতে মিছিল করে রাস্তায় ঘোরানো এবং সেই সঙ্গে তাঁকে জয় শ্রীরাম ধ্বনি দিতে বাধ্য করার অভিযোগে পুলিশ তিনজনকে গ্রেপ্তার করেছে। আফসার আহমেদ নামে ওই রিকশাওয়ালার অভিযোগ, বেলা তিনটে নাগাদ তিনি রিকশা চালিয়ে যাচ্ছিলেন হঠাৎই একদল লোক তাঁকে রিকশা থেকে নামিয়ে মারধর করতে শুরু করে। তাঁকে টেনে হিঁচড়ে রাস্তা দিয়ে নিয়ে যাওয়া হয় ও বাধ্য করা হয় জয় শ্রীরাম ধ্বনি দিতে। ওই সময় আহমেদের বালিকা কন্যা বাবাকে আঁকড়ে ধরে ছিল, আর নিগ্রহকারীদের কাছে কাতর অনুরোধ জানাচ্ছিল বাবাকে ছেড়ে দেওয়ার জন্য। কিন্তু ওরা তাতে কান দেয়নি। কেউ এই ঘটনার ভিডিও তুলে রাখে। তাতে দেখা যায় নিগ্রহকারীদের মধ্যে অনেকের গলায় গেরুয়া চাদর ছিল।

পুলিশের কাছে আহমেদ জানিয়েছেন, ওরা কোনও একটা পুরনো ঘটনার সৃত্র ধরে ওঁকে নিগ্রহ করেছে। পুলিশ হিন্দুত্ববাদী বজরং দলের সদস্য হিসেবে নিগ্রহকারীদের চিহ্নিত করেছে। এই ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রচার করার পর থেকেই তা নিয়ে শোরগোল ওঠে। কানপুরের পদস্থ পুলিশ অফিসার রাভীনা ত্যাগী জানিয়েছেন, তিনি ভিডিওটা দেখেছেন। নিগৃহীতের বয়ান অনুযায়ী এফআইআর করা হয়েছে, আইন অনুসারে অপরাধীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এর পর অজয়, রাহুল কুমার ও আমিন গুপ্ত নামে তিন নিগ্রহকারীকে বৃহস্পতিবার গভীর রাতে পুলিশ গ্রেপ্তার করে। সঙ্গে সঙ্গে বজরং দলের লোকজন থানার সামনে গিয়ে বিক্ষোভ জানাতে থাকে। পুলিশ তাদের আশ্বাস দেয়, ঠিক মতো তদন্ত করে যা ব্যবস্থা নেওয়ার, নেওয়া হবে। তারপর বজরঙ্গীরা চলে যায়।

XS
SM
MD
LG