অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

রিকশায় চড়ে বাংলাদেশের মানুষকে দেখতে চান পোপ ফ্রান্সিস। তাই একটি রিকশা তৈরি। নবসাজে সাজানো হয়েছে রিকশাটিকে। ৩০ বছর আগে ১৯৮৬ সনের ১৯শে নভেম্বর পোপ দ্বিতীয় জন পলও ঢাকায় রিকশা চড়েছিলেন। পোপের মিডিয়া টিম যখন এই খবরটি তার কাছে পৌঁছে দেয় তখন তিনি একই ইচ্ছে ব্যক্ত করেন।

আগামীকাল সকালে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের বিশেষ প্রার্থনা সভা শুরু হওয়ার আগে পোপ রিকশায় চড়তে পারেন। ৮০ হাজার মানুষ এই প্রার্থনা সভায় অংশ নেবেন। পোপের সফর উপলক্ষ্যে গঠিত মিডিয়া কমিটির সমন্বয়কারী ফাদার কমল কোড়াইয়া এই সংবাদদাতাকে বললেন, পোপের ইচ্ছে, তাই একটি রিকশা তৈরি করে রাখা হয়েছে।

পোপ সাধারণত কোন দেশ ভ্রমণে গেলে মার্সিডিজ বেঞ্জের বিশেষভাবে পরিবর্তিত বুলেটপ্রুফ গাড়ি ব্যবহার করে থাকেন। এটাকে পোপমবিল বলা হয়। গাড়িটি আনতে অনেক খরচ হবে, তাই পোপ নিজেই বাংলাদেশের আয়োজক কমিটিকে জানিয়েছেন ব্যয় কমানোর জন্য। পোপের একান্ত ইচ্ছায় ঢাকায় একটি টয়োটা পিকআপ গাড়ি বেছে নেয়া হয়। পিকআপের পেছনের অংশে কাঁচঘেরা একটি কেবিন রয়েছে। বসার জন্য একটি চেয়ার ও দাঁড়ানোর জন্য স্ট্যান্ড রয়েছে। এতে করে পোপ খুব সহজেই সাধারণ মানুষকে দেখতে পাবেন।

XS
SM
MD
LG