অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

পরীমনির রিমান্ডঃ দুই বিচারকের নিঃশর্ত ক্ষমা প্রার্থনা


চিত্রনায়িকা পরীমনি- ফাইল ফটো

মাদকের মামলায় আলোচিত চিত্রনায়িকা পরীমনির দ্বিতীয় ও তৃতীয় দফায় রিমান্ড মঞ্জুর করা দুই জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট নিঃশর্ত ক্ষমা প্রার্থনা করেছেন। ঢাকার জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট দেবব্রত বিশ্বাস ও আতিকুল ইসলাম রোববার হাইকোর্টে ক্ষমা চেয়ে এফিডেভিট দাখিল করেন। তারা অনিচ্ছাকৃত ভুলের জন্য গভীর অনুতাপ প্রকাশ করেন। ভবিষ্যতে রিমান্ড মঞ্জুরের ক্ষেত্রে আরও সতর্ক থাকবেন বলেও এতে উল্লেখ করা হয়েছে। দুপুরে বিচারপতি মোস্তফা জামান ইসলাম ও বিচারপতি এ এস এম আব্দুল মোবিনের হাইকোর্ট বেঞ্চে এ নিয়ে শুনানি হয়। আদালত আগামী ২৫ নভেম্বর এ ব্যাপারে আদেশের দিন ধার্য করেছেন।

এ মামলায় দুই বিচারকের পক্ষে আইনজীবী হিসেবে ছিলেন আবদুল আলীম মিয়া জুয়েল। অন্যদিকে, পরীমনির পক্ষে ছিলেন সিনিয়র এডভোকেট জেড আই খান পান্না ও মুজিবুর রহমান। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন অ্যাটর্নি জেনারেল এ এম আমিন উদ্দিন ও সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল মো. মিজানুর রহমান।

বাংলাদেশে রিমান্ড নিয়ে দীর্ঘদিন ধরেই বিতর্ক চলে আসছে। রিমান্ডে নিয়ে নির্যাতন করা হয় এমন অভিযোগ উঠেছে বহুবার। যদিও এ নিয়ে উচ্চ আদালতের সুনির্দিষ্ট নির্দেশনা রয়েছে।

নায়িকা পরীমনির দ্বিতীয় ও তৃতীয় দফার রিমান্ড নিয়ে গত ২ সেপ্টেম্বর দুই বিচারকের কাছে ব্যাখ্যা চান হাইকোর্ট। কী কী তথ্য-উপাত্তের ওপর ভিত্তি করে পরীমনিকে শেষ দুই দফা রিমান্ডে পাঠানো হয় তার ব্যাখ্যা চাওয়া হয় দুই ম্যাজিস্ট্রেটের কাছে। তাদেরকে ব্যাখ্যা দিতে ১০ দিন সময় দেয়া হয়। ক্ষমা চেয়ে দুই বিচারকের ব্যাখ্যা গত ১৫ই সেপ্টেম্বর হাইকোর্টে উপস্থাপন করা হয়। তবে তাদের ব্যাখ্যায় উষ্মা প্রকাশ করেন হাইকোর্ট। উচ্চ আদালত বলেন, "আমরা তাদের ব্যাখ্যায় সন্তুষ্ট নই।" পরে আদালত তাদেরকে ফের ব্যাখ্যা দিতে বলেন। একদফায় সময় নিয়ে তারা আদালতে সে ব্যাখ্যা দাখিল করেন।

২০১৫ সালে ঢাকাই সিনেমায় অভিষেক হয় পরীমনির। গত ৪ আগস্ট রাজধানীর বনানীর বাসা থেকে তাকে গ্রেফতার করে র‍্যাব। পরে তার বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা দায়ের করা হয়। আদালত জামিন মঞ্জুরের পর গত ১ সেপ্টেম্বর কারাগার থেকে মুক্তি পান তিনি। তবে এ মামলায় এরইমধ্যে তার বিরুদ্ধে চার্জশিট দাখিল করা হয়েছে। এর আগে গত জুনে ঢাকা বোট ক্লাবে যৌন নির্যাতন এবং হত্যাচেষ্টার শিকার হয়েছেন বলে অভিযোগ করেন পরীমনি। ওই ঘটনায় তার করা মামলায় ব্যবসায়ী নাসির উদ্দিন মাহমুদসহ তিনজনের বিরুদ্ধে ইতিমধ্যে চার্জশিট দিয়েছে পুলিশ।

XS
SM
MD
LG