অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

সংঘবদ্ধভাবে নারীকে বিবস্ত্র করে নির্যাতন ও ধর্ষণের মামলায় দুজনের যাবজ্জীবন


যাবজ্জীবন দণ্ডপ্রাপ্ত দেলোয়ার ও কালাম

সংঘবদ্ধভাবে নারীকে বিবস্ত্র করে নির্যাতন, ধর্ষণ ও মোবাইল ফোনে তা ধারণ করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল করার বহুল আলোচিত মামলায় দুই আসামিকে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া ৫০ হাজার টাকা জরিমানা ও অনাদায়ে আরও তিন মাসের সশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত।

আজ নোয়াখালীর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-১ এর বিচারক জয়নাল আবেদীন এ রায় দেন। এই প্রথম মাত্র ১৩ কার্য দিবসের মধ্যে নোয়াখালীতে কোনো মামলার রায় হলো। মামলার রায় ঘিরে আদালত পাড়ায় নিরাপত্তা জোরদার ছিল। এ ছাড়া বিভিন্ন মানবাধিকার ও নারী সংগঠনের কর্মীরা রায়ের সময় উপস্থিত ছিলেন।

চলতি বছরের ১৭ ফেব্রুয়ারি দুই আসামি, দেলোয়ার হোসেন দেলু ও তার সহযোগী মোহাম্মদ আলী প্রকাশ আবু কালামের বিরুদ্ধে চার্জ গঠন করা হয়। বাদী পক্ষের ১২জন ও আসামি পক্ষের তিনজন সাক্ষ্য দেন।

রাষ্ট্রপক্ষের কৌঁসুলি অ্যাডভোকেট মামুনুর রশীদ লাভলু ও বাদী পক্ষের আইনজীবী মোল্লা হাবিবুর রাসুল মামুন মামলার রায়ে সন্তোষ প্রকাশ করেছেন। তবে আসামি পক্ষের আইনজীবী অ্যাডভোকেট জসিম উদ্দিন বাদল রায়ে অসন্তোষ প্রকাশ করেন, তারা ন্যায়বিচার পাননি, উচ্চ আদালতে আপিল করার কথা জানান।

উল্লেখ্য, ২০২০ সালের ২ সেপ্টেম্বর নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ উপজেলার একলাশপুরে ওই নারীকে তার ঘরে ঢুকে সংঘবদ্ধভাবে বিবস্ত্র করে নির্যাতন চালায় দেলোয়ার ও তার লোকজন। এ সময় তারা ওই ঘটনা মোবাইল ফোনে ধারণ করে। যা একই বছরের ৪ অক্টোবর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়। তা প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষণ করে। সারা দেশে প্রতিবাদ হয়। মানবাধিকার ও নারী সংগঠনের কর্মীরা সভা সমাবেশ করে।

পরে নির্যাতনের শিকার ওই নারী ২০১৯ সালের ৫ অক্টোবর ও ২০২০ সালের ৭ এপ্রিল দুই দফায় তাকে ধর্ষণের ঘটনা উল্লেখ করে দেলোয়ার ও কালামের বিরুদ্ধে মামলা করে। এ ছাড়া বিবস্ত্র করে নির্যাতন ও পর্নোগ্রাফিসহ আরও দুটি মামলা হয়।

XS
SM
MD
LG