অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

হোয়াইট হাউজের প্রেস সেক্রেটারি সন স্পাইসার পদত্যাগ করেছেন। সংবাদ মাধ্যমগুলো বিভিন্ন সূত্রের উদ্ধৃতি দিয়ে বলেছে, হোয়াইট হাউসে নতুন যোগাযোগ পরিচালক হিসেবে এন্থনী কারামুচীর নিয়োগকে কেন্দ্র করে তিনি পদত্যাগের সিদ্ধান্ত নেন।

তারা বলছে, নিউইয়র্কের পুঁজিপতি কারামুচীর নাম ঘোষণার অল্প কিছুক্ষণ পর প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্পের মুখপাত্র স্পাইসারের ইস্তেফা পত্রটি পান। শুক্রবার দুপুরে এক সংবাদ সম্মেলনে হোয়াইট হাউজের মুখপাত্রী স্যারা হাকাবী স্যান্ডারস ট্রাম্পের পক্ষ থেকে একটি বিবৃতি পাঠ করে শোনান। প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প স্পাইসারকে তার কাজের জন্য ধন্যবাদ জানিয়েছেন। তিনি বলেন, “আমার প্রশাসন এবং আমেরিকান জনগণের পক্ষ থেকে শনকে তার কাজের জন্য আমি অত্যন্ত কৃতজ্ঞতার সংগে ধন্যবাদ জানাচ্ছি। পরবর্তীতে তিনি যেখানেই নতুন কাযে যোগ দেবেন --- তার সাফল্য কামনা করছি।”

স্পাইসারের প্রেস বিবৃতি টেলিভিশন এবং সামাজিক মাধ্যমে প্রচুর দর্শকের মনোযোগ আকর্ষণ করেছে।

ওদিকে, সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত প্রতিবেদনে বলা হয়েছে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের আইনজীবিরা যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে রাশিয়ার হস্তক্ষেপ বিষয়ের তদন্তে রবার্ট মুলারের বেছে নেওয়া আইনজীবিদের অতীত ইতিহাস খুঁজে তার নেতৃত্বে চলা তদন্ত দলের সম্মান হানীর চেষ্টা চালাচ্ছেন। তদন্তকারীদের মধ্যে কোনো স্বার্থের দ্বন্দ্ব আছে কিনা তারও সন্ধান করছেন তারা।

নিউইয়র্ক টাইমস 'এর খবরে বলা হয়েছে, ট্রাম্পের সাহায্যকারীরা ঐ তদন্তকারীদের পেশাগত যোগ্যতা এবং রাজনীতিতে তাদের অতীত অভিজ্ঞার বিস্তারিত ভাবে খোঁজ নিচ্ছেন যাতে রবার্ট মুলারের বিরুদ্ধে তা ব্যবহার করা যায়।

আপনার পছন্দমত বেছে নিন

মন্তব্যগুলো দেখান

XS
SM
MD
LG