অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

৪৬ জন আফগান শিখ ও হিন্দুসহ আরও ৭৮ জন ভারতে এসে পৌঁছালেন 


কাবুল থেকে সরিয়ে নেওয়া ভারতীয়দের বহনকারী প্লেন হিন্ডন এয়ার ফোর্স বেসে পৌঁছেছে। রবিবার, আগস্ট ২২, ২০২১।

আফগানিস্তানের কাবুল থেকে আরও আটাত্তর জন তাজিকিস্তানের দুশানব হয়ে আজ সকালে নতুন দিল্লিতে এসে পৌঁছেছেন। কাবুলে এখন যেহেতু কোনও বাণিজ্যিক বিমান ওঠানামার অনুমতি নেই, তাই গতকাল ভারতীয় বিমানবাহিনীর একটি বিমানে করে ওই ৭৮ জনকে দুশানবে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে একদিন অপেক্ষার পর এয়ার ইন্ডিয়ার একটি বিমানে করে তাঁদের ভারতে আনা হয়। এঁদের মধ্যে ছিলেন ৪৬ জন আফগান শিখ ও হিন্দু, আর ছিল আফগানিস্তানের নানা গুরদোয়ারা থেকে সংগৃহীত শিখদের তিনটি পবিত্র 'গ্রন্থ সাহেব'। দিল্লির বিমানবন্দরে ওই গ্রন্থ সাহেবগুলিকে গ্রহণ করেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী হরদীপ সিং পুরি এবং ভি মুরলিধরণ। তার পরে পুরি একটি বিতর্কিত টুইট করেন, "পবিত্র শ্রী গ্রন্থ সাহেব মাথায় করে নিয়ে এসেছি।" প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহকে ট্যাগ করে পুরি লিখেছেন, "আফগানিস্তানের শিখ ও হিন্দুদের চরম দুর্গতির মুখে পড়তে হচ্ছে। তাঁদের সকলকে ফিরিয়ে আনতে হবে। এইজন্যই ভারতে সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন সিএএ দরকার।" এর পরেই ওই মন্তব্যের বিরুদ্ধে প্রবল প্রতিবাদ ওঠে। পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী অমরিন্দর সিং বলেছেন, এখনও পাঞ্জাবে বহু শিখ ও হিন্দু রয়েছেন যাঁরা বহু বছর এ দেশে থেকেও নাগরিকত্ব পাননি।

এবার যেসব শিখ আফগানিস্তান থেকে ভারতে এসে পৌঁছেছেন, তাঁদের পুনর্বাসনের দায়িত্ব নিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের একটি শিখ সংগঠন। যতদিন না এঁরা নিজেদের মতো কিছু করে উঠতে পারছেন, ততদিন তাঁদের ভরণপোষণের ভার ওঁরা নেবেন।

ভারতের বিদেশমন্ত্রক জানিয়েছে, আরও কিছু বিমান আফগানিস্তান থেকে ভারতীয় ও বন্ধুস্থানীয় আফগানদের নিয়ে আসবে। তার জন্য সব রকমের চেষ্টা ও বিভিন্ন দেশের সঙ্গে আলোচনা চলছে। বিদেশমন্ত্রক জানিয়েছে, এখনও আফগানিস্তানে ১৬০০ জন ভারতীয় রয়ে গিয়েছেন। তাঁদের অনেকের সঙ্গেই যোগাযোগ করা হয়েছে, বাকিদের সঙ্গে হচ্ছে। আশপাশের দেশগুলোর ভারতীয় দূতাবাসে স্থলপথে তাঁদের নিয়ে যাওয়া যায় কিনা তাও চিন্তা করা হচ্ছে। তবে তাতে ঝুঁকি অনেক বেশি। তাই আপাতত বিমানই ভরসা।

XS
SM
MD
LG