অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

চলে গেলেন নাট্যব্যক্তিত্ব শাঁওলি মিত্র


শাঁওলি মিত্র

রবিবার বিকালে শেষনিঃশ্বাস ত্যাগ করেন 'নাথবতী অনাথবৎ'খ্যাত শাঁওলি মিত্র। তার বয়স হয়েছিল ৭৪ বছর। ইতিমধ্যেই তার শেষকৃত্য সম্পন্ন হয়েছে সিরিটি শ্মশানে। তার পরেই প্রকাশ করা হয়েছে মৃত্যু সংবাদ। দীর্ঘদিন ধরেই অসুস্থ ছিলেন শাঁওলি মিত্র। আজ তার প্রয়াণের খবরে শোকস্তব্ধ বাংলা নাট্য জগৎ।

জানা গেছে, বছর দুয়েক আগে শাঁওলি মিত্র একটি ইচ্ছাপত্র তৈরি করেছিলেন। রীতিমতো সরকারি স্ট্যাম্পপেপারে লিখে তিনি জানিয়ে যান, তার মৃত্যুর খবর যেন শেষকৃত্যের পরে সকলকে জানানো হয়। শেষ দু'বছর তিনি অসুস্থতায় হাসপাতালেও যেতে চাননি, বাড়িতেই ছিলেন। বারবার বলতেন, মৃত্যুর পরে ফুলের ভার বইতে চান না তিনি, চান না সমারোহ, ভিড়। তার মৃত্যুর পরে তাকে যেন প্রদর্শন না করা হয় কোথাও। সেই ইচ্ছাকেই মর্যাদা দিয়েছেন তাঁর প্রিয়জনেরা।

শম্ভু মিত্র ও তৃপ্তি মিত্রের কন্যা শাঁওলি মিত্র। নাট্যজগতে ইতিমধ্যেই চর্চা শুরু হয়েছে শম্ভু মিত্রর মৃত্যু নিয়ে। কারণ অনেকেরই মনে পড়ে যাচ্ছে, শম্ভু মিত্রও একই ইচ্ছা প্রকাশ করেছিলেন। চেয়েছিলেন, মৃত্যুর পরে যত দ্রুত সম্ভব তার শেষকৃত্য যেন সম্পন্ন হয়। অন্ত্যেষ্টির পরেই যেন সকলকে তার মৃত্যু সংবাদ জানানো হয়।

কোনও অতিরিক্ত সম্মান প্রদর্শন, গান স্যালুট, উচ্চকিত স্মৃতিচারণা— কাউকে কোনও সুযোগই দেননি শম্ভু মিত্র। মেয়ে শাঁওলি মিত্রকেই বলে গিয়েছিলেন নিজের শেষ কথাকটি। জানিয়েছিলেন, দিনের শেষে একজন সামান্য মানুষ তিনি। তাই শেষবেলাতেও যেন সামান্য আয়োজনটুকুই হয়। তাই হয়েছিল ১৯৯৭ সালে। গভীর রাতে, সবার অলক্ষ্যে সিরিটি শ্মশানে শেষকৃত্য সমাধা হয়েছিল তার।

একই পথে হেঁটে সেই একই ইচ্ছা প্রকাশ করেন কন্যা শাঁওলি মিত্রও। তিনিও শেষবারের মতো জ্বলে শেষ হয়ে গেলেন সিরিটি শ্মশানেই। নাট্য ব্যক্তিত্ব অর্পিতা ঘোষ এবং সায়ক চক্রবর্তীকে মানস কন্যা ও মানস পুত্র বলে উল্লেখ করে, শেষ সময়ে তাদের পাশে চেয়েছিলেন শাঁওলি মিত্র। আজ, শেষ সময়ে তারা তো ছিলেনই, ছিলেন নাট্য ব্যক্তিত্ব দেবেশ চট্টোপাধ্যায়ও।

শাঁওলি আজীবন ছিলেন বাংলা থিয়েটার ও সিনেমার একনিষ্ঠ কর্মী। অভিনয় জীবনের শুরুতেই কাজ করেছেন ঋত্বিক ঘটকের মতো চিত্রপরিচালকের সঙ্গে। ২০০৩ সালে অনন্য অভিনয়ের স্বীকৃতি হিসেবে পেয়েছেন সংগীত নাটক আকাদেমি পুরস্কার। ২০১২ সালে অভিনয়ে পশ্চিমবঙ্গ সরকার তাকে বঙ্গবিভূষণ পুরস্কারে সম্মানিত করে। তিনি আমৃত্যু ছিলেন পশ্চিমবঙ্গ বাংলা আকাদেমির দায়িত্বে।

শাঁওলি মিত্রর মৃত্যুর খবরে বিশেষ শোকবার্তা প্রকাশ করা হয়েছে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের পক্ষ থেকে। তাতে মমতা লিখেছেন, "বাংলা নাট্যজগতের বিশিষ্ট ব্যক্তিত্ব এবং প্রখ্যাত মঞ্চশিল্পী শাঁওলি মিত্রের প্রয়াণে আমি গভীর ভাবে শোকাভিভূত বোধ করছি।"

XS
SM
MD
LG