অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

চীনের চাপে শেষ পর্যন্ত নতিস্বীকার করল শ্রীলঙ্কা 


শ্রীলংকা ও চীনের পতাকা

শনিবার কর্মকর্তারা জানিয়েছেন যে মানসম্মত নয় বলে জৈবসারের একটি চালান ফেরত পাঠিয়ে দেওয়ার পরও চীনের একটি কোম্পানীকে ৬৮ লক্ষডলার প্রদান করেছে শ্রীলঙ্কা, যেখানে কিনা কলম্বো বর্তমানে বৈদেশিক মুদ্রার সঙ্কটের মধ্যে রয়েছে।

রাষ্ট্রপরিচালিত পিপল’স ব্যাংক অফ শ্রীলঙ্কা জানায় যে চালানটির বিষয়ে আদালতের বাইরে হওয়া একটি সমঝোতার অংশ হিসেবে, তারা কিংডাও সিউইন বায়োটেক গ্রুপকে ৬৮ লক্ষ ৭০ হাজার ডলার প্রদান করেছে।

শ্রীলঙ্কায় সারের সরবরাহ সঙ্কট রয়েছে, কিন্তু অক্টোবরে কর্তৃপক্ষ জানায় যে পরীক্ষা করে দেখা গিয়েছে সারের ঐ চালানটি দূষিত এবং সেটিকে শ্রীলঙ্কার কোথাও খালাস হওয়ার বিষয়ে নিষেধাজ্ঞা জারি করে।

পাল্টা জবাবে চীন ব্যাংকটিকে কালো তালিকাভুক্ত করে এবং কলম্বোর বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিকভাবে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়ার হুমকি দেয়।

বেইজিং, কলম্বোর একটি প্রধান উন্নয়ন সহযোগী এবং সেখানে কয়েক কোটি ডলার ঋণ প্রদান করেছে। এর ফলে শঙ্কা তৈরি হয়েছে যে কলম্বো চীনের ঋণের ফাঁদে পা দিতে চলেছে, যদিও উভয় দেশই এমন শঙ্কার বিষয়টি নাকচ করে দিয়েছে। শনিবার দিনে আরও পরের দিকে চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়্যাং ই-এর ঐদ্বীপ রাষ্ট্রটি ভ্রমণের পূর্বে এই সমঝোতা হল।

প্রেসিডেন্ট গোতাবায়া রাজাপাকসে এবং অন্যান্য নেতাদের সাথে আলোচনা, এবং দুই পক্ষের মধ্যে কূটনৈতিক সম্পর্ক স্থাপনের ৬৫ তম বার্ষিকী উপলক্ষে চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী দেশটিতে দুই দিনের সফরে গেছেন।

১০০ শতাংশ জৈবসার ব্যবহারকারী বিশ্বের প্রথম দেশ হতে রাজাপাকসের প্রচেষ্টার অংশ হিসেবে, শ্রীলঙ্কা প্রাথমিকভাবে চীন থেকে জৈবসারের চালানটির ক্রয়াদেশ প্রদান করেছিল।

কৃষিতে রাসায়নিকের ব্যবহার ছাড়া ফলন কমে যাবে মর্মে কৃষকরা ব্যাপক আন্দোলন শুরু করলে, সরকার গত বছরের মে মাসে রাসায়নিকের ব্যবহারে জারি করা নিষেধাজ্ঞাটি, অক্টোবরে প্রত্যাহার করে নেয়।


[এএফপি]

XS
SM
MD
LG