অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

নাইজেরিয়ায় ২৪ ঘণ্টার ভেতর অপহৃত ছাত্রদের ৩টি দলকে মুক্তি দেওয়া হয়েছে


মুক্তিপ্রাপ্ত কয়েকজন ছাত্র। তাঁরা সালিহু ট্যাঙ্কো ইসলামিক স্কুল এর ছাত্র ছিল। নাইজেরিয়ায় ডিসেম্বরের পর থেকে এক হাজারেরও বেশি শিক্ষার্থীকে অপহরণ করা হয়। ২৭শে আগস্ট, ২০২১। ছবি-এপি

নাইজেরিয়ার উত্তরাঞ্চলের কর্তৃপক্ষ ঘোষণা করেছে যে তিনটি পৃথক দলের অপহৃত শিক্ষার্থীদের ২৪ ঘন্টার মধ্যে মুক্তি দেওয়া হয়েছে । এ ঘটনায় শুক্রবার রাতে অনুমান করা হয় যে, সাম্প্রতিক এই অপহরণের জন্য দায়ী বন্দুকধারীদের বড় রকমের মুক্তিপণ দেওয়া হয়েছে।

সাম্প্রতি যারা মুক্তি পেয়েছে তারা নাইজেরিয়ায় এ পর্যন্ত জিম্মি হওয়া শিক্ষার্থীদের মধ্যে সবচেয়ে কম বয়সী। এরা ৯০ জন শিক্ষার্থীর একটি দল যারা তিন মাস বন্দী অবস্থায় কাটিয়েছে। ওই শিশুদের নিজারের রাজধানীতে আনার কয়েক ঘণ্টা পর জামফারা রাজ্যের পুলিশ জানিয়েছে যে বড় ১৫ জন ছাত্রকেও সেখানে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।

বার্তা সংস্থা এপি’র হিসেবে বলা হয়েছে , ডিসেম্বরের পর থেকে এক হাজারেরও বেশি শিক্ষার্থীকে অপহরণের পর একের পর এক শিক্ষার্থীদের মুক্তি দেওয়া হচ্ছে। যদিও পূর্বে স্কুলের শিক্ষার্থীদের অপহরণের জন্য উত্তর -পূর্বাঞ্চলে ইসলামি উগ্রবাদীদের দায়ী করা হত, তবে কর্তৃপক্ষ বলছে সর্বশেষ অপহরণের পিছনে মুক্তিপণের জন্য দস্যুদের হাত রয়েছে।

৫৪ বছর বয়স্ক শিক্ষক ইয়াহিয়া আলিয়ু বাবাঙ্গিদা বললেন, “আমার আনন্দের সীমা পরিমাপ করা যাবে না।” ওনার দুজন সন্তানকে মে মাসের শেষের দিকে তেগিনার সালিহু ট্যাঙ্কো ইসলামিক স্কুল থেকে অপহরণ করা হয়েছিল।একজনের বয়স ছিল ৭ বছর এবং অপরজন ১৭ বছর।

অপহৃতদের মধ্যে কয়েকজন যারা প্রিস্কুলে যেত তাদের বয়স ছিল মাত্র ৪ বছর, তারা কয়েক মাস বন্দী অবস্থায় কাটিয়েছে। কর্তৃপক্ষ বলেছে যে শুক্রবার এই কঠিন পরীক্ষার মুখোমুখি হয়ে একটি শিশু মারা গেছে। বৃহস্পতিবার রাতে মুক্তি পাওয়ার পর আরও বেশ কয়েকজন শিক্ষার্থী চিকিৎসাধীন ছিলো।

এই শিশুরা এই কঠিন আবহাওয়ার সম্মুখীন হয়েছিল। সেখানে খাবার ছিল না, সর্বত্র মশার যন্ত্রনা ছিল। এই শিশুরা এর আগে তাদের বাড়ির আরামের বাইরে কখনো যায়নি।

XS
SM
MD
LG