অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

দায়িত্ব গ্রহণের কয়েক ঘন্টার মধ্যেই পদত্যাগ করলেন সুইডেনের প্রথম নারী প্রধানমন্ত্রী


সুইডেনের প্রথম মহিলা প্রধানমন্ত্রী হিসেবে নিয়োগ পাওয়ার পর ম্যাগডালেনা অ্যান্ডারসন সংবাদ সম্মেলনে কথা বলছেন। নভেম্বর ২৪, ২০২১।

সুইডেনের প্রথম নারী প্রধানমন্ত্রী ম্যাগডালেনা অ্যান্ডারসন দায়িত্ব নেওয়ার কয়েক ঘন্টার পরে পদত্যাগ করেছেন। বুধবার সংসদে বাজেট পাশ না হওয়া এবং তার জোটের অংশীদার গ্রীনস এই দ্বিদলীয় সংখ্যালঘু সরকার থেকে বেরিয়ে যাবার পর অ্যান্ডারসন পদত্যাগ করলেন।

বিরোধীদের উপস্থাপিত একটি প্রস্তাবের পক্ষে সমর্থন বেশি থাকায় সরকারের নিজস্ব বাজেট প্রস্তাব পাশ হয়নি। বিরোধী ঐ দলগুলোর মধ্যে ডানপন্থী লোকানুবর্তী সুইডেন ডেমোক্র্যাট দলও রয়েছে। সুইডেনের তৃতীয় বৃহত্তম ঐ দলটি নব্য-নাৎসি আন্দোলনের মূলে রয়েছে। বিরোধীদের বাজেট প্রস্তাবটির পক্ষে ১৫৪ এবং বিপক্ষে ১৪৩ ভোট পড়ে।

সোশ্যাল ডেমোক্রেটিক পার্টির নেতা অ্যান্ডারসন, দেশটির প্রথম মহিলা প্রধানমন্ত্রী হয়ে ইতিহাস সৃষ্টি করার সাত ঘন্টার কিছু বেশি সময় পরে সিদ্ধান্ত নেন যে, ঐ পদ থেকে সরে যাওয়াই ভাল।

এক সংবাদ সম্মেলনে অ্যান্ডারসন বলেন, "আমার জন্য এটি সম্মানের বিষয়, তবে আমি এমন একটি সরকারকে নেতৃত্ব দিতে চাই না, যেখানে এর বৈধতা নিয়ে প্রশ্ন তোলার সুযোগ থাকতে পারে"।

এর আগে বুধবার সুইডেনের পার্লামেন্ট অর্থমন্ত্রী ম্যাগডালেনা অ্যান্ডারসনকে দেশটির প্রথম মহিলা প্রধানমন্ত্রী হিসেবে অনুমোদন দিয়েছিল। তিনি সম্প্রতি সোশ্যাল ডেমোক্রেটিক পার্টির নতুন নেতা নির্বাচিত হন।

দলটির নেতা এবং প্রধানমন্ত্রীর পদে স্টিফান লোফভেনের জায়গায় অ্যান্ডারসনকে বেছে নেয়া হয়েছিল। চলতি বছরের শুরুতে লোফভেন দায়িত্ব ছেড়ে দেন।

এই পদক্ষেপকে সুইডেনের জন্য একটি মাইলফলক হিসেবে চিহ্নিত করা হচ্ছে। দেশটিকে কয়েক দশক ধরে নারী-পুরুষের সমতার ক্ষেত্রে ইউরোপের সবচেয়ে প্রগতিশীল দেশগুলোর মধ্যে একটি হিসেবে দেখা হয়। তবে দেশটির শীর্ষ রাজনৈতিক পদে এখন পর্যন্ত কোন নারী নেই। লোফভেনের সরকার নিজেদের নারীবাদী হিসেবে বর্ণনা করে। সরকারটি নারী-পুরুষের সমতাকে জাতীয় ও আন্তর্জাতিক কাজের কেন্দ্রে রাখে।

অ্যান্ডারসনকে সমর্থন জানানো স্বতন্ত্র আইন প্রনেতা আমিনেহ কাকাবাভেহ সংসদে দেয়া এক বক্তৃতায় বলেন, সুইডেন বর্তমানে স্ক্যান্ডিনেভিয়ান দেশে সর্বজনীন ও সমান ভোটাধিকার প্রবর্তনের সিদ্ধান্তের ১০০তম বার্ষিকী উদযাপন করছে।

ইরানী কুর্দি বংশোদ্ভুত কাকাবাভেহ বলেন, "নারীদের যদি কেবলমাত্র ভোট দেবার অনুমতি দেয়া হয় কিন্তু তারা কখনোই সর্বোচ্চ পদে নির্বাচিত না হন, তাহলে গণতন্ত্র সম্পূর্ণ হবে না"।

সংসদে তাঁর নিয়োগ অনুমোদনের পর অ্যান্ডারসন বলেছিলেন, "কাকাবাভেহ যা বলেছেন তাতে আমি অনুপ্রাণিত হয়েছি। তিনি ঠিক সেই বিষয়টিই চিহ্নিত করেছেন, যা আমি ভাবছিলাম"। পার্লামেন্ট সদস্যরা তাঁকে দাঁড়িয়ে সম্মান জানান এবং লাল গোলাপের তোড়া দিয়ে অভিনন্দন জানিয়েছিলেন।

XS
SM
MD
LG