অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

জামালপুরে নিখোঁজ সেই তিন মাদ্রাসা ছাত্রী উদ্ধার হলো ঢাকায় 


জামালপুরের ইসলামপুর উপজেলার দারুত তাক্বওয়া মহিলা মাদ্রাসা

জামালপুরের ইসলামপুর উপজেলার দারুত তাক্বওয়া মহিলা মাদ্রাসার সেই তিন ছাত্রীকে নিখোঁজ হওয়ার পাঁচ দিন পর ঢাকার মুগদা থেকে উদ্ধার করা হয়েছে। ইসলামপুর সার্কেলের এএসপি মো. সুমন মিয়ার নেতৃত্বে পুলিশের একটি দল বৃহস্পতিবার রাতে তাদের উদ্ধার করে জামালপুরে নিয়ে আসে। পরে আইনি প্রক্রিয়া শেষে ওই তিন ছাত্রীকে তাদের অভিভাবকদের হাতে তুলে দেওয়া হয়।

জামালপুরের ইসলামপুর রেলস্টেশনের সিসিটিভির ফুটেজের সূত্র ধরে শুরু হয় অনুসন্ধান। পুলিশের একটি টিম জামালপুর থেকে ঢাকা পর্যন্ত সব স্টেশনে খোঁজ শুরু করে। বৃহস্পতিবার ঢাকার কমলাপুর রেলস্টেশনের সিসিটিভির ফুটেজে তাদের শনাক্ত করা হয়। এরপর রিকশা চালকদের জিজ্ঞাসা করতে করতে জানা যায় তারা কোথায় আছে। পুলিশ নিশ্চিত হয় তিনজন একটি রিকশায় চড়ে কোথাও গেছে। জানা যায়, ছাত্রীদের দুজনের আত্মীয় ঢাকার জাপান সিটিগার্ডেন এবং মাদারটেক এলাকায় থাকে। মাদারটেক মিল এলাকায় জানা যায়, স্থানীয়রা তিন ছাত্রীকে রিকশায় করে যেতে দেখেছে। বের করা হয় সেই রিকশাচালককে। জিজ্ঞাসাবাদে রিকশাচালক জানায়, তিন ছাত্রী রাজা মিয়া নামে তার এক বন্ধুর কাছে রয়েছে। পরে রাজার দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে মুগদার মানদা বস্তির একটি কক্ষ থেকে ঘুমন্ত অবস্থায় তাদের তিনজনকে উদ্ধার করা হয়। রাজা মিয়া জানায়, মাসে ১৫০০ টাকায় ঘর ভাড়া করে দিয়েছে তাদের। দুজনকে দিয়েছে গার্মেন্টে চাকরি।

এদিকে উদ্ধার হওয়া তিন ছাত্রীকে শুক্রবার সকালে ইসলামপুর থানায় নিয়ে আসা হয়। পরে অভিভাবকদের হাতে তুলে দেওয়া হয়। মীম আক্তারের বাবা জানান, শিশুরা পুলিশের কাছে বলেছে, মাদ্রাসার টাকা চুরি হওয়া নিয়ে তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। এ নিয়ে প্রমাণিত হলে আইনিভাবেই তাদের ছেড়ে দেওয়া হবে।

উল্লেখ্য, গত রবিবার ভোররাত থেকে জামালপুরের ইসলামপুর দারুত তাক্বওয়া মহিলা মাদ্রাসার আবাসিক তিন ছাত্রী মনিরা আক্তার, মীম আক্তার ও সূর্যবানু নিখোঁজ হয়।

XS
SM
MD
LG