অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

আফগানদের জীবন রক্ষার জন্য তালিবানের প্রতি জাতিসংঘ মহাসচিবের আহ্বান


নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে পাকিস্তানের চামন সীমান্ত দিয়ে হাজার হাজার আফগান নারী-পুরুষ পাকিস্তানে প্রবেশের চেষ্টা করছে

জাতিসংঘের মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেস সোমবার বলেন, এই “গুরুত্বপূর্ণ” দিনে আফগানিস্তানকে সারা “বিশ্ব দেখছে”। তিনি আফগানদের জীবন রক্ষার জন্য তালেবানদের “অত্যন্ত সংযমী” হতে এবং তাঁদের কাছে প্রয়োজনীয় মানবিক সহায়তা পৌঁছানোর অনুমতি দেওয়ার আহ্বান জানান।

জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের এক জরুরি বৈঠকে গুতেরেস বলেন, “আমরা আফগানিস্তানের জনগণকে ত্যাগ করতে পারব না এবং অবশ্যই তা করবো না”। তালেবান দখলের মুখে প্রেসিডেন্ট আশরাফ গনির সরকার পতনের একদিন পর দেশটিতে চরম বিশৃঙ্খলার সৃষ্টি হয়েছে।

জাতিসংঘের মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেস
জাতিসংঘের মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেস

তিনি বলেন, “আমি অবিলম্বে সহিংসতা বন্ধের আহ্বান জানাচ্ছি, যাতে সকল আফগানদের অধিকারকে সম্মান করা হয়, সেই সাথে আফগানিস্তানকে সমস্ত আন্তর্জাতিক চুক্তি মেনে চলার জন্য বলছি”।

বিশৃঙ্খল পরিস্থিতি সৃষ্টি হওয়ার আগে প্রায় ১ কোটি ৮০ লাখ বা জনসংখ্যার অর্ধেক মানুষের মানবিক সহায়তার প্রয়োজন ছিল। বর্তমানে সেখানে ভয়াবহ মানবিক সংকটের আশঙ্কা বাড়ছে।

গুতেরেস প্রতিশ্রুতি দিয়ে বলেন, “জাতিসংঘ সেখানকার নিরাপত্তা পরিস্থিতির সাথে মানিয়ে নেবে। সর্বোপরি, আমরা তাঁদের পাশে থাকব এবং আফগান জনগণের প্রয়োজনের সময় তাদের কাছে সবরকম সহায়তা পৌঁছে দেব”।

উত্তর আফগানিস্তানের মাজার-ই-শরিফ শহরের প্রান্তে তালেবান এবং আফগান নিরাপত্তা কর্মীদের মধ্যে লড়াই থেকে পালিয়ে যাওয়ার পর একটি অভ্যন্তরীণভাবে বাস্তুচ্যুত আফগান মহিলা তার মেয়েদের সাথে একটি শিবিরের সামনে একটি অস্থায়ী তাঁবুতে দাঁড়িয়ে আছে।
উত্তর আফগানিস্তানের মাজার-ই-শরিফ শহরের প্রান্তে তালেবান এবং আফগান নিরাপত্তা কর্মীদের মধ্যে লড়াই থেকে পালিয়ে যাওয়ার পর একটি অভ্যন্তরীণভাবে বাস্তুচ্যুত আফগান মহিলা তার মেয়েদের সাথে একটি শিবিরের সামনে একটি অস্থায়ী তাঁবুতে দাঁড়িয়ে আছে।

জাতিসংঘ প্রধান সে দেশে মানবাধিকার, বিশেষ করে নারী ও মেয়েদের দুর্দশা সম্পর্কে গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন, যারা পূর্ববর্তী তালেবান শাসনামলে গুরুতর নির্যাতনের শিকার হয়েছিল।

তিনি বলেন, “আফগান নারী ও মেয়েদের কষ্টার্জিত অধিকারগুলো রক্ষা করা অপরিহার্য। তারা আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের সমর্থনের দিকে তাকিয়ে আছে – যে সম্প্রদায় তাদের আশ্বাস দিয়েছিল সুযোগ সম্প্রসারিত হবে, শিক্ষা নিশ্চিত হবে, স্বাধীনতার দ্বার উন্মোচিত হবে, এবং অধিকার সুরক্ষিত হবে”।

তালিবান যোদ্ধারা দক্ষিণ আফগানিস্তানের কান্দাহার শহরের ভিতরে টহল দিচ্ছে
তালিবান যোদ্ধারা দক্ষিণ আফগানিস্তানের কান্দাহার শহরের ভিতরে টহল দিচ্ছে

গুতেরেস সতর্ক করে দিয়ে বলেছেন, দেশটিকে আবার সন্ত্রাসীদের আস্তানা বা মঞ্চ হতে দেওয়া যাবে না।

XS
SM
MD
LG