অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

আফগানিস্তানের উন্নয়ন নিয়ে আলোচনার জন্য যুক্তরাষ্ট্রের বিশেষ দূতের সফর শুরু


 একটি ময়লা আবর্জনার স্তূপের মধ্যে একটু খাবার খুঁজছেন একজন ক্ষুধার্ত আফগান। ৭ নভেম্বর, ২০২১।
একটি ময়লা আবর্জনার স্তূপের মধ্যে একটু খাবার খুঁজছেন একজন ক্ষুধার্ত আফগান। ৭ নভেম্বর, ২০২১।

আফগানিস্তান বিষয়ক যুক্তরাষ্ট্রের বিশেষ প্রতিনিধি সোমবার দক্ষিণ এশিয়ার দেশটির উন্নয়ন বিষয়ে আলোচনার জন্য ইউরোপ এবং এশিয়ায় তার প্রথম সফর শুরু করছেন, যেখানে শিশুসহ প্রায় ২৩ মিলিয়ন মানুষ দুর্ভিক্ষে পতিত হওয়ার হুমকিতে রয়েছে।

রাষ্ট্রদূত থমাস ওয়েস্টের প্রথমে যাবেন ব্রাসেলস, যেখানে মিত্র এবং অংশীদারদের সাথে মূলত আফগানিস্তানের ভবিষ্যৎ নিয়ে আলোচনা হবে।

একটি প্রাক-ভ্রমণ টুইটে থমাস ওয়েস্ট বলেছেন, “আমি আমেরিকার অত্যাবশ্যক স্বার্থের অগ্রগতি এবং আফগান জনগণকে সমর্থন করার অপেক্ষায় রয়েছি”। “আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে একটা কার্যকর সমাধানে একসঙ্গে কাজ করতে হবে” বলে তিনি জোর দিয়ে বলেন।

জাতিসংঘ সতর্ক করে দিয়ে বলেছে যে, আফগানিস্তানে ৪০ মিলিয়ন জনসংখ্যার প্রায় অর্ধেকেরও বেশি মানুষ এই শীতে ক্ষুধার্ত হয়ে পড়বে, যদি না দাতাদের কাছ থেকে আরও তহবিল আসে। অন্যদিকে, ওয়ার্ল্ড ফুড প্রোগ্রাম সোমবার এক বিবৃতিতে বলেছে, জ্বালানি খরচ বাড়ছে, খাদ্যের দাম বাড়ছে, আরও ব্যয়বহুল হচ্ছে সার, আর এই সবই আফগান সঙ্কটকে আরও ঘনীভূত করবে।

যুক্তরাষ্ট্রের নেতৃত্বাধীন বিদেশী সৈন্য প্রত্যাহারের পর, গত আগস্টে আফগানিস্তানে ইসলামপন্থী তালিবানের ক্ষমতায় প্রত্যাবর্তন দেশটিকে অর্থনৈতিক সঙ্কটে নিমজ্জিত করেছে এবং আফগানিস্তানের মানবিক প্রয়োজনকে অভূতপূর্ব মাত্রায় বাড়িয়ে দিয়েছে, যা বছরের পর বছর ধরে চলা যুদ্ধ এবং দীর্ঘস্থায়ী ব্যাপক খরা থেকে উদ্ভূত হয়েছে।

ইসলামি শাসনের অধীনে মানবাধিকার পরিস্থিতি নিয়ে উদ্বেগের জন্য আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় তালিবান সরকারকে কূটনৈতিক স্বীকৃতি দিতে অস্বীকার করেছে।

যদিও তালিবান তাদের সরকারের সমালোচনা প্রত্যাখ্যান করেছে এবং বারবার বিশ্ব সম্প্রদায়কে আশ্বস্ত করেছে যে, তারা নারী ও সংখ্যালঘুসহ সকল আফগানের মানবাধিকার রক্ষা করবে। সেই সাথে, অর্থনৈতিক মন্দা ঠেকাতে এবং প্রয়োজনে জরুরী সহায়তা প্রদান করতে ইসলামপন্থী গোষ্ঠীটি কূটনৈতিক স্বীকৃতি এবং বিদেশে আফগান সম্পদের অবমুক্তি দাবি করেছে।

XS
SM
MD
LG