অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

বেলারুশের উপর আরও নিষেধাজ্ঞা আরোপ করলেন প্রেসিডেন্ট বাইডেন


বেলারুশিয়ান প্রেসিডেন্ট আলেকজান্ডার লুকাশেঙ্কো

যুক্তরাজ্য, ব্রিটেন এবং কানাডার সাথে একযোগে বেলারুশের উপর নতুন নিষেধাজ্ঞা আরোপ করলো যুক্তরাষ্ট্র। পূর্ব ইউরোপের দেশটিতে নির্বাচনে কথিত কারচুপির বিরুদ্ধে প্রতিবাদ শুরুর এক বছর পূর্তিতে এই ঘোষণা এলো ওয়াশিংটনের তরফ থেকে। সেই সময় থেকে বেলারুশিয়ান প্রেসিডেন্ট আলেকজান্ডার লুকাশেঙ্কো শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভকারী এবং রাজনৈতিক বিরোধীদের বিরুদ্ধে দমন-পীড়ন চালিয়ে আসছেন।

নির্বাচনে ব্যাপকভাবে কারচুপির বিরুদ্ধে প্রতিবাদ
নির্বাচনে ব্যাপকভাবে কারচুপির বিরুদ্ধে প্রতিবাদ

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন এক বিবৃতিতে বলেন, “বেলারুশিয়ান জনগণের সুস্পষ্ট ইচ্ছাকে সম্মান দেয়ার পরিবর্তে, লুকাশেঙ্কো সরকার নির্বাচনে জালিয়াতি করেছে, তারপর ভিন্নমতকে দমন করার জন্য দমন-পীড়ন অভিযান চালানো হচ্ছে। হাজার হাজার শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভকারীকে আটক করা হয়েছে। এছাড়া ৫০০-র বেশি সুশীল সমাজের নেতা এবং সাংবাদিকদের কারাবন্দী করা হয়েছে। আন্তর্জাতিক নিয়ম ভেঙ্গে একটি বিমানের ফ্লাইট ঘুরিয়ে দেয়া হয় । লুকাশেঙ্কো প্রশাসনের এইসব পদক্ষেপ অবৈধ এবং বৈশ্বিক রীতিনীতির পরিপন্থী। যেকোন মূল্যে ক্ষমতায় থাকার জন্য তিনি এই অন্যায় কাজগুলো করে যাচ্ছেন”।

ওয়াশিংটনের পাশাপাশি অটোয়া এবং লন্ডন, বেলারুশের নির্মাণ, জ্বালানী, পটাশ এবং তামাক শিল্পের উপর অবরোধ আরোপ করেছে। যুক্তরাষ্ট্রের অর্থ মন্ত্রণালয় এই সেক্টরগুলোকে লুকাশেঙ্কো সরকারের "মানিব্যাগ" হিসাবে বর্ণনা করেছে।

ব্রিটেন এবং যুক্তরাষ্ট্র এর আগে বেশ কিছু বেলারুশিয়ান ব্যক্তির সম্পদ বাজেয়াপ্ত করে এবং তাদের উপর ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে। তারপরও ১৯৯৪ সাল থেকে বেলারুশের ক্ষমতায় থাকা লুকাশেঙ্কোর আচরণকে নিয়ন্ত্রণ করতে তারা ব্যর্থ হয়েছে।

XS
SM
MD
LG