অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

যুক্তরাষ্ট্রে যারা টিকা নেননি এখন তারাই প্রধানত করোনার কবলে


ফাইল ছবি (রয়টার্স) : যুক্তরাষ্ট্রের লস এঞ্জিলিসের হলিউড বুলেভার্ডের দৃশ্য

যুক্তরাষ্ট্রে এখন কভিড-১৯ এ সংক্রমণ ও মৃত্যুর সংখ্যা বাড়ছে। করোনাভাইরাসের এই প্রচন্ড সংক্রামক ডেল্টা প্রকরণ ছড়িয়ে পড়ার জন্য দায়ি হচ্ছেন  টিকা যারা নেননি তারা। কর্মকর্তারা বলছেন যে গত সপ্তায় যুক্তরাষ্ট্রের যে চারটি অঙ্গরাজ্যে সংক্রমণ দেখা দেয় তার ৪০% শতাংশের জন্য দায়ী হচ্ছে টিকা গ্রহণের স্ব্ল্প হার তবে এই সংক্রমণ ৫০টি অঙ্গরাজ্যের সব ক’টিতেই বেড়েছে

যুক্তরাষ্ট্রে এখন কভিড-১৯ এ সংক্রমণ ও মৃত্যুর সংখ্যা বাড়ছে। করোনাভাইরাসের এই প্রচন্ড সংক্রামক ডেল্টা প্রকরণ ছড়িয়ে পড়ার জন্য দায়ি হচ্ছেন টিকা যারা নেননি তারা। কর্মকর্তারা বলছেন যে গত সপ্তায় যুক্তরাষ্ট্রের যে চারটি অঙ্গরাজ্যে সংক্রমণ দেখা দেয় তার ৪০% শতাংশের জন্য দায়ী হচ্ছে টিকা গ্রহণের স্ব্ল্প হার তবে এই সংক্রমণ ৫০টি অঙ্গরাজ্যের সব ক’টিতেই বেড়েছে।

রোগ নিয়ন্ত্রণ ও প্রতিরোধ কেন্দ্রের পরিচালক ড. রোশেল ওয়ালেনস্কি শুক্রবার বলেন গত সপ্তায় যুক্তরাষ্ট্রে প্রতিদিন গড়ে নতুন করে সংক্রমিত হয়েছেন ২৬,০০০ মানুষ। তিনি বলেন এই সংক্রমণ এখন, “টিকাবিহীন লোকের মহামারি”। শুক্রবার দিনের পরের দিকে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন, ওয়ালেনস্কির মূল্যায়নের পুণরাবৃত্তি করেন। তিনি বলেন, “এই মহামারি এখন একমাত্র তাদের মধ্যে আছে যারা টিকা নেয়নি”।

এ দিকে ইংল্যান্ড যে সোমবার থেকে সে দেশে করোনা সংক্রান্ত বিধিনিষেধ প্রত্যাহার করার পরিকল্পনা করছে সে সম্পর্কে সরকারের আন্তর্জাতিক উপদেষ্টারা উদ্বেগ ব্যক্ত করেছেন। উপদেষ্টারা মনে করছেন এর ফলে ব্রিটেন করোনাভাইরাসের নতুন প্রকরণের কবলে পড়বে এবং সম্ভবত দেশটি এই ব্যাধি সংক্রমণের মূল জায়গা হয়ে উঠতে পারে। এ দিকে টোকিও অলিম্পিক ভিলেজে এক লোক করোনাভাইরাস পরীক্ষায় পজিটিভ সনাক্ত হবার পর টোকিও অলিম্পিক এই ভাইরাস সংক্রমণের আরেকটি ক্ষেত্র হয়ে উঠতে পারে বলে অনেকে উদ্বিগ্ন।

জন্স হপকিন্স করোনাভাইরাস রিসোর্স সেন্টার শনিবার জানিয়েছে যে বিশ্বব্যাপী কভিড-১৯’এ প্রাণ হারিয়েছে চল্লিশ লক্ষেরও বেশি মানুষ এবং সংক্রমিত হয়েছে ১৮ কোটি ৯০ লক্ষ লোক।

XS
SM
MD
LG