অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

ভারত বায়োটেক যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে মিলে একশো কোটি করোনা টিকা উৎপাদন করবে


ভারত বায়োটেক যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে মিলে একশো কোটি করোনা টিকা উৎপাদন করবে

ভারতের প্রখ্যাত প্রতিষেধক নির্মাতা ভারত বায়োটেক আজ বুধবার ঘোষণা করেছে, তারা যুক্তরাষ্ট্রের একটি বিশ্ববিদ্যালয়ের সঙ্গে হাত মিলিয়ে একশো কোটি করোনা টিকা উৎপাদন করতে চলেছে।

ভারতের প্রখ্যাত প্রতিষেধক নির্মাতা ভারত বায়োটেক আজ বুধবার ঘোষণা করেছে, তারা যুক্তরাষ্ট্রের একটি বিশ্ববিদ্যালয়ের সঙ্গে হাত মিলিয়ে একশো কোটি করোনা টিকা উৎপাদন করতে চলেছে।

দক্ষিণ ভারতের হায়দরাবাদ ভিত্তিক এই প্রতিষেধক তৈরির সংস্থাটি ওয়াশিংটন ইউনিভার্সিটি স্কুল অফ মেডিসিন, সেন্ট লুই, মিসৌরির সঙ্গে গবেষণায় হাত মিলিয়েছে। শীঘ্রই প্রাথমিক পর্যায়ে মানুষের ওপর এই প্রতিষেধকের পরীক্ষা সেন্ট লুই বিশ্ববিদ্যালয়েই হবে। তার পরের পর্যায়ে সেই পরীক্ষা হবে ভারতে।

আজ ভারত বায়োটেকের কর্ণধার ডঃ কৃষ্ণ আল্ল্যা জানান, তাঁদের তৈরি প্রতিষেধক তুলনামূলক ভাবে সস্তা হবে এবং সহজ উপায়ে বিপুল পরিমাণে তৈরি করা হবে। ফলে প্রথমেই একশো কোটি মানুষের উপরে সেটি প্রয়োগ করা যাবে। সবচেয়ে বড় কথা হচ্ছে, এটির ডোজ শুধু এককালীন এবং নাকের ভেতর দিয়ে এই টিকাটি শরীরে ঢোকানো হবে বলে উপায়টা অনেক সহজ ও ঝঞ্ঝাট কম।

স্বাস্থ্য কর্মীর সংখ্যা কম থাকলেও এটি দিতে অসুবিধা হবে না প্রসঙ্গত উল্লেখ করা যায়, বর্তমানে আরও যে দুটি প্রতিষেধক তৈরির কাজ অনেকখানি এগিয়ে গিয়েছে, তার একটিকে অক্সফোর্ড ভ্যাকসিন বলে লোকে চেনে, অন্যটি স্পুটনিক বা রাশিয়ান ভ্যাকসিন হিসেবে পরিচিত। ওই দুটিই ইঞ্জেকশন করে দিতে হয়। এদিকে ভারত বায়োটেকের ভ্যাকসিন সহজেই নাকের ভিতর দিয়ে ঢুকিয়ে দেওয়া হয় বলে ইঞ্জেকশনের সিরিঞ্জ, ছুঁচ, ইত্যাদি মেডিক্যাল বর্জ্যের ঝামেলা নেই। তাতে খরচও কম পড়ে। দীপংকর চক্রবর্তী, ভয়েস অফ আমেরিকা, কলকাতা

please wait

No media source currently available

0:00 0:01:25 0:00
সরাসরি লিংক


XS
SM
MD
LG