অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

যুক্তরাষ্ট্রের অনুরোধে দুই হাজার আফগান শরণার্থীকে আশ্রয় দেবে উগান্ডা


আফগান শরণার্থী

যুক্তরাষ্ট্রের অনুরোধে উগান্ডা সাময়িকভাবে ২ হাজার আফগান শরণার্থীকে আশ্রয় দিতে সম্মত হয়েছে।

উগান্ডার ত্রাণ, দুর্যোগ প্রস্তুতি ও শরণার্থী বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী এস্থার আনিয়াকুন বলেছেন, প্রেসিডেন্ট ইওয়েরি মুসেভেনি ২ হাজার আফগান শরণার্থীকে আশ্রয় দেওয়ার প্রস্তুতি নিতে তাকে বলেছেন।

তিনি বলেন, উগান্ডা যুক্তরাষ্ট্রের অনুরোধে এটি করছে।

তিনি বলেন, “তারা আমাদের অনুরোধ করেছে, ২ হাজার শরণার্থীকে আশ্রয় দেওয়ার জন্য।আমরা আশা করছি, তাদের ভেঙ্গে ভেঙ্গে ৫০০ জন করে আনা হবে। ইউএনএইচসিআর এন্টিবেতে ইম্পেরিয়াল হোটেলগুলিকে একটি ট্রানজিট সেন্টার হিসাবে সুরক্ষিত রেখেছে, যাতে তাদের সেখানে আসার পর স্ক্রিনিং করানো হয়।

জাতিসংঘের শরণার্থীবিষয়ক হাইকমিশনের উগান্ডা প্রতিনিধি জোয়েল বাউত্রু আফগান শরণার্থীদের গ্রহণের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, “উগান্ডা সরকারের উদারতাকে আমরা অবশ্যই স্বাগত জানাই। আমরা প্রস্তুতি নিচ্ছি, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় শরণার্থীদের বিমানবন্দরে গ্রহণ করে, তাদের থাকার ব্যবস্থা করবে। তারপর তাঁদের স্ক্রীনিং, টেস্টিং এইসব করা হবে। পরবর্তী ধাপে উগান্ডার সরকার কিংবা অন্যান্য দেশ, বিশেষ করে যুক্তরাষ্ট্র যদি তাদের পুনর্বাসন করতে চায়, তাহলে তা করতে পারে।

কট্টর ইসলামপন্থী শাসনের হাত থেকে বাঁচতে দেশ ছেড়ে পালাচ্ছে আফগান নাগরিকরা
কট্টর ইসলামপন্থী শাসনের হাত থেকে বাঁচতে দেশ ছেড়ে পালাচ্ছে আফগান নাগরিকরা

রবিবার তালিবান যোদ্ধারা কাবুলে ঢুকেছে এবং প্রেসিডেন্ট ভবনের নিয়ন্ত্রণ নিয়েছে বলে ঘোষণা দেওয়ার পর, হাজার হাজার আফগান নাগরিক দেশ ছেড়ে পালাচ্ছে। প্রেসিডেন্ট আশরাফ গনিও আফগানিস্তান থেকে পালিয়ে যান। বলা হচ্ছে, গত ২০ বছর ধরে চলা সংঘাত শেষে তিনি আর কোন রক্তপাত দেখতে চাননি।

তালিবান যোদ্ধারা আফগানিস্তানে যুদ্ধ শেষ বলে ঘোষণা করলে, হাজার হাজার সাধারণ মানুষ কট্টর ইসলামপন্থী শাসনের হাত থেকে পালিয়ে যেতে শুরু করে।

XS
SM
MD
LG