অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

আমেরিকার নব  নির্বাচিত প্রথম নারী ভাইস প্রেসিডন্ট কামালা হ্যারিস 


আমেরিকার ইতিহাসে প্রথম নারী কামালা হ্যারিস যিনি ইতিহাস রচনা করেন। ২০২০’র নির্বাচনে প্রথম কৃষ্ণাঙ্গ ও ভারতীয় বংশদ্ভুত আমেরিকান এবং প্রথম মহিলা যিনি যুক্তরাষ্ট্র সরকারের দ্বিতীয় শক্তিধর পদ ভাইস প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হন।

ওয়াশিংটন ডিসির হাওয়ার্ড বিশ্ববিদ্যালে পড়া শেষ করে ক্যালিফোর্নিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের হেষ্টিংস কলেজ অব ল থেকে আইন বিষয়ে ডিগ্রি নেন।

কমালা হ্যারিস ২০০৩সালে সান ফ্রান্সিসকোর ডিষ্ট্রিক এ্যাটর্নি এবং ২০১০ সালে ক্যালিফোর্নিয়ার এ্যাটর্নি জেনারেল নির্বাচিত হন। কামালা হ্যারিস ২০১৪ সালে দুই সন্তানের জনক আইনজীবী ডগলাস এমহফের সঙ্গে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন। এরই মধ্যে ডেমোক্র্যাটিক পার্টির একজন উদীয়মান তারকা হিসেবে কমালা হ্যারিসের সুনাম ছড়িয়ে পড়তে থাকে। ২০১৭ সালে তিনি ক্যালিফোর্নিয়ার জুনিয়র সেনেটর নির্বাচিত হন।

তিনি প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের একজন কড়া সমালোচক। তা ছাড়া সেনেটের বিভিন্ন শুনানীতে আগতদের কড়া প্রশ্ন করার জন্যও তিনি বিখ্যাত হন।

ভার্জিনিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক বারবারা প্যারি বললেন, “আমাদের সুপ্রিম কোর্টে আগে থেকেই মহিলা আছেন । কংগ্রেসের হাউস স্পিকার হিসাবে আমরা ন্যান্সিপেলোসিকে পেয়েছি কিন্তু কার্যনির্বাহী শাখায় কখনও আমারা কোনও নারীকে ভাইসপ্রেসিডেন্ট হিসেবে পাইনি ---এখনও প্রেসিডেন্ট তো নয়ই। তিনি একজন কৃষ্ণাঙ্গনারী। তিনি অভিবাসী বাবা-মা’র সন্তান যারা উন্নত জীবনের জন্য এই দেশে এসেছিলেন।”

প্রতিনিধি পরিষদের ডেমোক্রেটিক সদস্য বারবারা লী বললেন, “তিনি নিজে পাহাড় সমান স্বচ্ছ দেয়াল ভেঙ্গে---পথ তৈরি করেছেন অনেক নারীর জন্য।”

হ্যারিস ২০১৭ সালে প্রথম ইতিহাস সৃষ্টি করেছিলেন ক্যালিফোর্নিয়ায়। তিনি প্রথম দক্ষিণ এশিয় এবং দ্বিতীয় কৃষ্ণাঙ্গ আমেরিকান মহিলা যিনি সেনেটার নির্বাচিত হন।

এই গ্রীষ্মে ব্ল্যাক লাইভস ম্যাটার আন্দোলনে বিক্ষোভ চলাকালীন সময়ে বেশ কিছু প্রগতিশীল তাকে যথেষ্ট প্রগতিশীল না হবার জন্য সমালোচনা করেছিলেন। তাদের বক্তব্য ছিল যে মৃত্যুদন্ডের মতো বিষয়ে হারিস অভিশংসক হিসেবে বেশি কঠোর ছিলেন। পরে অবশ্য পরস্পর বিরোধী অবস্থান নেনএবং পুলিশী অত্যাচারের জন্য তাদেরকে দায়ী করতে তিনি ব্যর্থ হন।

এসওএস চিল্ডেনস ভিলেজ ইউএসএ’র প্রধান নির্বাহী নীল ঘোষ মনে করেন, “আমেরিকার সবচাইতে বড় রাজ্যের এটর্নী জেনারেল হিসেবে তিনি যে সিদ্ধান্তগুলো নিয়েছিলেন ঐ সময় তার প্রয়োজন ছিল। একটা সময় ছিল, একটা ফোকাস ছিল, যেটা ঐ বিশেষ সময়ে দরকার ছিল হয়তো। একজন বাস্তববাদী রাজনীতিবিদ হিসেবে তখন আর এখন টাইমটা আলাদা, পজিশনটা আলাদা,রেস্পন্সিবিলিটি আলাদা।”

টেক্সাস বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ওব্রায়েন বললেন, “এটা গুরুত্বপূর্ণ যে মানুষ কিন্তু তাদের মতই একজনকে ক্ষমতায় দেখতে পছন্দ করে।"

হ্যারিসের স্বামী আইনজীবী ডাগ এমহফ হবেন হোয়াইট হাউসের ‘second gentleman’ আর এই পদটিও হোয়াইট হাউসের ইতিহাসে হবে সম্পূর্ণ নতুন। ভাইস প্রেসিডেন্টের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ কাজ হচ্ছে প্রয়োজনে তিনি যেন যে কোন বিষয়ে প্রেসিডেন্টের হয়ে পদক্ষেপ নেওয়ার মত ক্ষমতা রাখেন। বিশ্লেষকরা বলেছেন, ইতিহাস সৃষ্টিকারী কামালা হ্যারিস প্রথম কৃষ্ণাঙ্গ নির্বাচিত মহিলা ভাইস প্রেসিডেন্ট এবং তিনি তার কাজটি সুচারু রূপে সম্পন্ন যে করবেন তা বলাই বাহুল্য। যুক্তরাষ্ট্রের নব নির্বাচিত ভাইস প্রেসিডেন্ট কামালা হ্যারিসের বিজয়ে পৃথিবীর অপর প্রান্ত ভারতের প্রত্যন্ত গ্রামে যেখানে কামালা হ্যারিসের বংশপরম্পরার সূত্র গ্রথিত সেখানেও চলে আনন্দ উৎসব।

XS
SM
MD
LG