অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

কুষ্টিয়ায় পুলিশ সদস্যের গুলিতে স্ত্রী-সন্তান ও যুবক নিহত


কুষ্টিয়ায় পুলিশ সদস্যের গুলিতে স্ত্রী-সন্তান ও যুবক নিহত

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, কুষ্টিয়া-ঝিনাইদহ মহাসড়কের কাস্টমস মোড়ে আসমা তার সন্তানকে নিয়ে দাঁড়িয়ে ছিলেন। পাশে শাকিলও ছিলেন। সৌমেন রায় হঠাৎ সেখানে উপস্থিত হয়ে আসমার মাথায় গুলি চালায়।

কুষ্টিয়ায় প্রকাশ্যে স্ত্রী-সন্তান ও এক যুবককে গুলি করে হত্যার অভিযোগ উঠেছে পুলিশের সহকারী উপপরিদর্শক সৌমেন রায়ের বিরুদ্ধে। স্থানীয়রা জানায় রোববার বেলা ১১টার দিকে শহরের কাস্টমস মোড়ে প্রকাশ্যে এ ঘটনা ঘটিয়েছে সৌমেন। নিহতরা হলেন আসমা খাতুন ও তার ছয় বছরের ছেলে রবিন এবং শাকিল খানের নামের অপর এক যুবক। নিহতরা সবাই তারা কুষ্টিয়া শহরে থাকতেন।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, কুষ্টিয়া-ঝিনাইদহ মহাসড়কের কাস্টমস মোড়ে আসমা তার সন্তানকে নিয়ে দাঁড়িয়ে ছিলেন। পাশে শাকিলও ছিলেন। সৌমেন রায় হঠাৎ সেখানে উপস্থিত হয়ে আসমার মাথায় গুলি চালায়। এসময় আসমার পাশে দাঁড়িয়ে থাকা শাকিলের মাথাতেও গুলি করে। এমন পরিস্থিতি দেখে শিশু রবিন দৌড় দেয়। পরে সৌমেন রবিনকেও গুলি করে। আসমা ঘটনাস্থলেই মারা যান আর বাকি দুইজন হাসপাতালে মারা যান। আশপাশের লোকজন বন্দুকধারীকে ধরতে গেলে সে দৌড়ে একটি ভবনের ভেতরে ঢুকে পড়ে। পরে পুলিশ এসে সৌমেনকে গ্রেপ্তার করে।

কুষ্টিয়ার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (এসপি) মোস্তাফিজুর রহমান এ খবরের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ঘটনার সাথে জড়িত সন্দেহে একজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। আমরা আশা করি এই অপরাধের উপযুক্ত বিচার হবে।

এদিকে সৌমেনকে গ্রেপ্তারের পর পুলিশি হেফাজতে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

XS
SM
MD
LG