অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

যথাযথ মর্যাদায় রবিবার পালিত হবে বুদ্ধ পূর্ণিমা


যথাযথ মর্যাদায় রবিবার পালিত হবে বুদ্ধ পূর্ণিমা

যথাযথ মর্যাদা ও ভাবগাম্ভীর্যের মধ্য দিয়ে রবিবার (১৫ মে) বাংলাদেশে বৌদ্ধ সম্প্রদায়ের বৃহত্তম ধর্মীয় উৎসব বুদ্ধ পূর্ণিমা পালিত হবে।

বৌদ্ধ ধর্মমতে, প্রায় আড়াই হাজার বছর আগে, এ তিথিতে বৌদ্ধ ধর্মের প্রবর্তক গৌতমবুদ্ধ জন্মগ্রহণ করেছিলেন নেপালের লুম্বিনী কাননে। এ রাতেই তিনি বোধিজ্ঞান লাভ করেছিলেন ভারতের বিহার রাজ্যের বুদ্ধগয়ায়। এছাড়া গৌতমবুদ্ধের মৃত্যুও হয়েছিল এ রাতেই। আর এ কারণেই এ তিথিকে বলা হয় ত্রিস্মৃতি বিজড়িত বুদ্ধপূর্ণিমা।

বিভিন্ন আচার-অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে, বাংলাদেশের বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বীরা দিনটি পালন করেন।

দিবসটি উপলক্ষে বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বীদের শুভেচ্ছা জানিয়ে পৃথক বাণী দিয়েছেন রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ বলেন, “বৌদ্ধ সভ্যতা ও এর সংস্কৃতি প্রাচীনকাল থেকেই বাংলার মানুষের সঙ্গে গভীরভাবে জড়িত। পাহাড়পুর এবং ময়নামতি শালবন বিহার তার উজ্জ্বল উদাহরণ।”

করোনার বিস্তার রোধে, স্বাস্থ্য নির্দেশিকা বজায় রেখে বুদ্ধ পূর্ণিমা উদযাপন করার জন্য তিনি বৌদ্ধ সম্প্রদায়ের সদস্যদের আহ্বান জানান।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, আগামীতে বাংলাদেশে সম্প্রীতির চর্চা ও বন্ধন আরও জোরদার করতে সকলকে উদারভাবে কাজ করার আহ্বান জানান।

তিনি বলেন, “আমি আশা করি গৌতম বুদ্ধের আদর্শকে ধারণ ও লালন করে, বাংলাদেশকে একটি শান্তিপূর্ণ দেশ হিসেবে গড়ে তুলতে সবাই ভূমিকা রাখবে।”

XS
SM
MD
LG