অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

দু’বছরেরও বেশি সময় বন্ধ থাকার পর কলকাতা-খুলনা-ঢাকা রুটে বাস চলাচল শুরু


কলকাতা-খুলনা-ঢাকা রুটে বাস চলাচল শুরু
দুই বছর তিন মাস বন্ধ থাকার পর, খুলনা রুটে আবারও ভারত ও বাংলাদেশের মধ্যে বাস সার্ভিস চালু হয়েছে। সোমবার (২৭ জুন) সকাল ৯টার দিকে শ্যামলী পরিবহনের একটি বাস, কলকাতার করুণাময়ী টার্মিনাল থেকে ২৮ জন যাত্রী নিয়ে বাংলাদেশের উদ্দেশে যাত্রা শুরু করে। পুলিশ নিরাপত্তায় বাসটি সন্ধ্যা ৭টা ৫৩ মিনিটের দিকে খুলনার নিউমার্কেট এলাকায় পৌঁছায়।

শ্যামলী পরিবহনের কর্ণধর অবনী কুমার ঘোষ জানান, “দীর্ঘদিন পর সড়ক পথে বাংলাদেশে আসতে পেরে খুব ভালো লাগছে। করোনার কারণে, ২০২০ সালের ১২ মার্চ এই সার্ভিসটি বন্ধ হয়ে যায়। খুলনাবাসীর অনুপ্রেরণায় সার্ভিসটি আবার চালু করেছি।”

তিনি বলেন, “নিত্যপ্রয়োজনীয় সব জিনিষের দাম বেড়ে গেছে। মানুষের আয় কমে গেছে। নূন্যতম ভাড়ায় খুলনার মানুষ যেন কলকাতায় যেতে পারে, সেদিকে তিনি দৃষ্টি রাখবেন। সবেমাত্র সার্ভিসটি চালু হয়েছে। সামনে ঈদের উৎসব ও পুজোয় যাত্রী-সংখ্যা বাড়বে।”

অবনী কুমার বলেন, “মোট ২৮ জন যাত্রী নিয়ে বেনাপোল বন্দর হয়ে খুলনা এসেছি। এখন ঢাকার উদ্দেশ্যে রওনা হবো। পরবর্তীতে প্রতিদিন কলকাতা থেকে বেনাপোল হয়ে বাংলাদেশে তিনটি গাড়ি চলাচল করবে।”

ঢাকা, খুলনা ও কোলকাতা রুটের বাস সার্ভিসের মাধ্যমে, খুলনা থেকে অল্প সময়ের মধ্যে কলকাতায় পৌঁছানো যায়।

কলকাতার বাসিন্দা বাসযাত্রী সীমা দাস বলেন, “প্রত্যেক দেশের সঙ্গে মেল বন্ধন হয় বাস ট্রেন বা বিমানের মাধ্যমে। তার মধ্যে কোনো একটি যানবহন পরিষেবা বন্ধ হয়ে গেলে, দু’দেশের মানুষেরই অনেক অসুবিধা হয়। এই সার্ভিস আবার চালু হওয়াটা দু’দেশের নাগরিকদের জন্যই আনন্দের বিষয়।”

কলকাতার ফ্যাশন ডিজাইনার ইরাণী মিত্র বলেন, “ঢাকায় একটি অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণের উদ্দেশ্যে এসেছি। বাস সার্ভিসটি ছিল না। দুই বছর বন্ধ থাকার পর সার্ভিসটি চালু হয়েছে। বন্ধের পর প্রথম যাত্রী এবং অ্যাওয়ার্ড অনুষ্ঠানে যেতে পেরে খুবই ভালো লাগছে। একইসঙ্গে পদ্মা সেতু দিয়ে প্রথম যাত্রা করবো। এটি একটি উপরি পাওনা। এটিও একটি অ্যাওয়ার্ড আমার কাছে। বাস কর্তৃপক্ষের ব্যবস্থাপনা খুবই ভালো। তাদের সার্ভিস ও ব্যবহারে আমি সন্তুষ্ট।”

XS
SM
MD
LG