অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

ভিভিআইপিসহ সকল বিমানযাত্রীকে বিমান বন্দরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা মেনে চলতে হবে: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা


বিমান পরিবহনের ক্ষেত্রে নিরাপত্তার ওপর জোর দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বলেছেন, ভিআইপি, ভিভিআইপিসহ সকল বিমানযাত্রীকে বিমান বন্দরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা মেনে চলতে হবে। যদি কেউ এ ক্ষেত্রে বাধা হয়ে দাঁড়ান তাহলে ভবিষ্যতে তার বিমানে চড়াই বন্ধ হয়ে যাবে বলে হুঁশিয়ারি দেন প্রধানমন্ত্রী। শনিবার সকালে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরে তৃতীয় টার্মিনাল নির্মাণ কাজের উদ্বোধনকালে প্রধানমন্ত্রী এসব মন্তব্য করেন।

জাপানের সহযোগিতায় তৃতীয় টার্নিমাল নির্মাণে ব্যয় হবে ২১ হাজার ৩শ কোটি টাকা। চার বছরে এর নির্মাণ কাজ সম্পন্ন হবে। শেখ হাসিনা একইসঙ্গে বিমানের পঞ্চম ও ষষ্ঠ ড্রিমলাইনার ‘সোনার তরী’ ও ‘অচীন পাখি’র উদ্বোধন করেন। বিমানের একটি মোবাইল অ্যাপস-এরও উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী। বিশ্বের যে কোন স্থান থেকে এই অ্যাপস-এর মাধ্যমে বিমানের টিকিট ক্রয় করা যাবে।

বিমানের অভ্যন্তরীণ রুটেও পরিবর্তন আসছে উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, কানাডা থেকে ৩টি বিমান সহসাই বিমান বহরে যুক্ত হবে। কক্সবাজার বিমানবন্দরকেও আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে উন্নীত করা হবে। প্রধানমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশের নিজস্ব কোন কার্গো বিমান নেই। অথচ এটার প্রয়োজন রয়েছে। তৃতীয় টার্মিনালের কাজ শেষ হলে অত্যাধুনিক কার্গো ভিলেজ নির্মাণ করা হবে। ক্রয় করা হবে ২টি কার্গো বিমান।

বিমানবন্দরে প্রবাস ফেরত বাংলাদেশীদের হয়রানি বন্ধে কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণেরও নির্দেশ দেন প্রধানমন্ত্রী।

please wait

No media source currently available

0:00 0:01:40 0:00



XS
SM
MD
LG