অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

বাংলাদেশের তারকা ক্রিকেটার সাকিবকে এপ্রিলের শেষ পর্যন্ত বিশ্রাম দিয়েছে বিসিবি


আইসিসি ক্রিকেট বিশ্বকাপ - বাংলাদেশ বনাম আফগানিস্তানের ম্যাচে আফগানিস্তানের নাজিবুল্লাহ জাদরানের উইকেট নেয়ার পর উল্লসিত বাংলাদেশের সাকিব আল হাসান । ২৪ জুন ২০১৯।

বাংলাদেশের আলোচিত তারকা ক্রিকেটার সাকিব আল হাসান দক্ষিণ আফ্রিকা সফর থেকে বিশ্রাম চেয়েছিলেন। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) সাকিবের অনুরোধ মেনে নিয়ে তাকে এপ্রিলের শেষ পর্যন্ত ক্রিকেট থেকে বিশ্রাম দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

বুধবার (৯ মার্চ) এ তথ্য জানিয়েছেন বিসিবির ক্রিকেট পরিচালনা বিভাগের প্রধান জালাল ইউনুস।

তিনি বলেন, “আমি আজ সাকিবের সঙ্গে কথা বলেছি এবং তার পরিকল্পনা সম্পর্কে জিজ্ঞাসা করেছি। সাকিব জানান, তিনি শারীরিক ও মানসিকভাবে আনফিট। তিনি দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে (যেতে) অনিচ্ছুক। (তাই) এপ্রিলের শেষ পর্যন্ত সাকিবকে বিশ্রামে রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বোর্ড।”

জালাল ইউনূস বলেন, “আমি বোর্ডের সভাপতি, সিইও এবং অন্য বোর্ড পরিচালকদের সঙ্গে কথা বলে তাকে বিশ্রাম দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। কারণ তিনি মানসিক ও শারীরিক ক্লান্তিতে ভুগছেন। তিনি এখন সব ধরনের ক্রিকেটের বাইরে থাকবেন।”

তিনি বলেন, “সাকিব মিডিয়াকে বলেছে যে, সে এখন খেলার জন্য মানসিকভাবে ফিট নয়। এখন আপনি কি এমন কাউকে দিয়ে জোর করে খেলাতে পারবেন, যে ফিট না? আমরা তাকে ভাবতে আরও কয়েক দিন সময় নিতে বলেছিলাম। সাকিব আমাদের বলেছেন তিনি খেলতে প্রস্তুত নন।”

জালাল ইউনুস বলেন, “এই বিরতির পর সাকিবকে সব ফরম্যাটেই পাওয়া যাবে কি না, তা পরিষ্কার নয়। তিনি আগামীকাল (বৃহস্পতিবার) সংযুক্ত আরব আমিরাত থেকে দেশে ফিরবেন। এর পরে তিনি তার ভবিষ্যত পরিকল্পনা নিয়ে আলোচনা করতে বোর্ডের সঙ্গে বসতে চান।”

উল্লেখ্য, বিসিবি সম্প্রতি দক্ষিণ আফ্রিকা সফরের জন্য দুটি স্কোয়াড ঘোষণা করেছে। যেখানে বাংলাদেশের তিন ম্যাচের ওয়ানডে এবং দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজ খেলার কথা রয়েছে। সাকিবও এই দলে ছিলেন।

তবে রবিবার সাকিব জানান, মানসিক ও শারীরিক ক্লান্তির কারণে এই মুহূর্তে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলার মতো অবস্থা নেই তার। একই সময়ে ৩৪ বছর বয়সী এই অলরাউন্ডার বলেন, “তিনি লাল বলের ক্রিকেটের পরিবর্তে সাদা বলের ক্রিকেটে বেশি মনোযোগ দিতে পছন্দ করেন।”

সাকিব এবারই প্রথম বিদেশ সফর এড়িয়ে যাচ্ছেন না। এর আগে তিনি ২০১৭ সালে দক্ষিণ আফ্রিকায় টেস্ট সিরিজ খেলতে যাননি। তিনি নিউজিল্যান্ডে শেষ দুটি সফরও এড়িয়ে গিয়েছেন এবং ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগে (আইপিএল) অংশ নেওয়ার জন্য তিনি শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে একটি সিরিজ খেলা বাদ দেন।

এদিকে সাকিবের বিষয়ে বাংলাদেশের সাবেক অধিনায়ক ও বর্তমান বোর্ডের পরিচালক খালেদ মাহমুদ সম্প্রতি বলেছেন, সাকিব, মুশফিক, তামিম ও মাহমুদুল্লাহর মতো সিনিয়র খেলোয়াড়রা তাদের ক্যারিয়ারের শেষের দিকে। তাই বোর্ডের উচিত নতুন মুখদের পরিচয় করিয়ে দেওয়া। যারা দীর্ঘ সময়ের জন্য জাতির সেবা করতে পারবেন।

মঙ্গলবার খালেদ মাহমুদ গণমাধ্যমকে বলেন, “আমাদের এ সত্য মেনে নিতে হবে। সাকিব খেলতে না চাইলে বোর্ড তার কেয়ার করে না। আমাদের নতুন খেলোয়াড়দের সামনে আনতে হবে।”

XS
SM
MD
LG