অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

ঢাকায় পর্যাপ্ত সরবরাহ সত্ত্বেও রমজানে বেড়েছে ফলের দাম


ফলের দোকান

বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকার বাজারে ফলের সরবরাহ পর্যাপ্ত, তার পরও, রমজানের শুরুতেই দেশি ও আমদানি করা ফলের দাম বেড়েছে।

আমদানিকারকরা বলছেন, জাহাজ ভাড়া বেশি। এর প্রভাব পড়েছে বিক্রয় মূল্যে। আর, স্থানীয় ব্যবসায়ীরা দাম বাড়ার জন্যে দায়ী করেছেন সড়ক পথের পরিবহণ ব্যয়কে।

রবিবার রমজানের প্রথম দিনে রাজধানীর বিভিন্ন বাজারে আপেলের দাম ছিলো, জাত ও মান ভেদে, প্রতি কেজি ১৬০ থেকে ২৪০ টাকা, নাশপাতি ২২০ থেকে ২৪০ টাকা, ডালিম ২২০ থেকে ২৪০ টাকা, মাল্টা ১৬০ থেকে ২১০ টাকা, কমলা ১৪০ থেকে ১৮০ টাকা, আঙ্গুর ২০০থেকে ২৩০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে।

খেজুরের দাম কেজিতে ২০ থেকে ২৫ টাকা বেড়েছে এবং আমদানি করা এই ফল গুণমানের ভিত্তিতে প্রতি কেজি ৩৫০ থেকে ১২৫০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে।

এছাড়া দেশি ফলের মধ্যে পেয়ারা (থাই জাতের) প্রতি কেজি ৭০ থেকে ৮০ টাকা, কলা ডজন প্রতি ৬০ থেকে ১২০ টাকা, তরমুজ ৩৫ থেকে ৪৫ টাকা, আনারস প্রতি পিস ৩০ থেকে ৫০ টাকা, আম (সবুজ) কেজি প্রতি ২৫০ থেকে ৩০০ এবং ড্রাগন ৪৫০ থেকে ৫৫০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে।

বাংলাদেশের তাজা ফল আমদানিকারক সমিতির সাধারণ সম্পাদক মো. সিরাজুল ইসলাম জানান, এই রমজানে বিদেশি ফলের সরবরাহ স্থিতিশীল।তবে, এবার জাহাজ ভাড়া বেশি। আর বাংলাদেশের মুদ্রার অবমূল্যায়ন হয়েছে। এসব কারণে আমদানি করা ফলের দাম বেড়েছে। একই সঙ্গে অভ্যন্তরীণ পরিবহন খরচও বেড়েছে।যা ফলের দামকে প্রভাবিত করেছে বলে জানান সিরাজুল ইসলাম ।

XS
SM
MD
LG