অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

ত্রিদেশীয় সিরিজ:পাকিস্তানের কাছে ২১ রানে হেরেছে বাংলাদেশ


ক্রাইস্টচার্চের হ্যাগলি ওভালে পাকিস্তান ও বাংলাদেশের মধ্যে প্রথম ক্রিকেট ম্যাচের সময় বাংলাদেশের লিটন দাস একটি শট খেলছেন।৭ অক্টোবর ২০২২। (ছবি সানকা বিদ্যানাগামা / এএফপি)

নিউজিল্যান্ডে চলমান ত্রিদেশীয় সিরিজে শুক্রবার (৭ অক্টোবর) পাকিস্তানের কাছে ২১ রানে হেরেছে বাংলাদেশ। ১৬৮ রানের টার্গেট সামনে রেখে ব্যাট করতে নেমে, ৮ উইকেট হারিয়ে ১৪৬ রান সংগ্রহ করে বাংলাদেশ।

শুরুটা ভালো না হলেও, দুই উইকেটে ৮৭ রান করতে সক্ষম হয় বাংলাদেশে। এরপর বাকি ছয় উইকেট হারিয়ে বাংলাদেশের সংগ্রহ দাঁড়ায় ১০১ রান। ক্রাইস্টচার্চের এ ম্যাচে, বাংলাদেশ জেতার মতো অবস্থায় ছিল না। টাইগারদের নিয়মিত উইকেট পতনের মধ্য দিয়ে হতাশাজনক ব্যাটিংয়ের জন্য অনুমেয় ফলাফলই দেখতে হয় ক্রিকেটপ্রেমীদের।

বাংলাদেশ দলের পরীক্ষামূলক ওপেনিং জুটি মেহেদী হাসান মিরাজ ও সাব্বির রহমান ২৬ বলে ২৫ রান করেন। মোহাম্মদ ওয়াসিম জুনিয়রের হাতে শিকার হওয়ার আগে মিরাজ ১১ বলে করেন ১০ রান। ১৪ রান করতে মিরাজের চেয়ে সাত বল বেশি খেলেন সাব্বির। ডানহাতি এই ব্যাটার-এর উইকেট নেন হারিস রউফ। রউফের ছোঁড়া বল লেগ সাইডে খেলতে গিয়ে সাব্বির একটু আগেই ব্যাট ঘুরিয়ে বলারের হাতে বল পাঠিয়ে দেন।

এমন পরফরমেন্সে, বাংলাদেশ টি-টোয়েন্টি দলে ফিরে আসা নিয়ে সাব্বির আবারও প্রশ্ন করার জায়গা তৈরি করলেন। আপ্রাণ চেষ্টা করেছেন লিটন দাস ও আফিফ হোসেন। তৃতীয় উইকেটে তারা ৫০ রান যোগ করলেও, জুটি ভেঙে যাওয়ায় বেকায়দায় পড়তে হয় বাংলাদেশকে।

পরপর দুই বলে লিটন ও মোসাদ্দেককে সরিয়ে দেন মোহাম্মদ নেওয়াজ। নুরুল হাসান ছয় নম্বর উইকেটে খেলতে নেমে, ৯ বলে মাত্র আট রান করেন। ইয়াসির আলি ২১ বলে ৪২ রান করে অপরাজিত থাকেন। শেষ ওভারে হ্যারিসের বলিংয়ে আলি ২০ রান করলেও, পরাজয় ঠেকাতে তা যথেষ্ট ছিল না। পাকিস্তানের হয়ে ওয়াসিম জুনিয়র তিনটি ও নওয়াজ দুটি উইকেট নেন।

এর আগে, ওপেনার মোহাম্মদ রিজওয়ানের অপরাজিত ৭৮ রান,পাকিস্তান ১৬৭ রানের চ্যালেঞ্জিং টার্গেট দিতে সক্ষম হয় বাংলাদেশের সামনে। মোস্তাফিজুর রহমান ও হাসান মাহমুদ একটি উইকেটের বিনিময়ে আট ওভারে ৯০ রান দেন। এদিকে, ম্যাচটিতে তাসকিন আহমেদ ছিলেন অসাধারণ। চার ওভারে ২৫ রান দিয়ে দুটি উইকেট নেন তিনি।

টসে জিতে পাকিস্তানকে প্রথমে ব্যাট করতে পাঠায় বাংলাদেশ। মেহেদী হাসান মিরাজ ২৫ বলে ২২ রান করা বাবরকে সরিয়ে দেওয়ার আগে, রিজওয়ান ও বাবর আজমের ৫২ রানের ওপেনিং স্থায়ী ছিল।

পাকিস্তানের তিন নম্বর উইকেটে শান মাসুদ ২২ বলে ৩১ রান করেন। বাঁহাতি স্পিনার নাসুম আহমেদের শিকার হন তিনি।উইকেটের একপাশে রিজওয়ান শক্ত অবস্থানে থাকলেও, অপরপাশ থেকে বাংলাদেশ উইকেট পাচ্ছিল।

ম্যাচের অর্ধেক যেতে না যেতেই, বাংলাদেশ হায়দার আলী (৬), ইফতিখার আহমেদ (১৩) ও আসিফ আলীর (৪) উইকেট নিজেদের দখলে নিয়ে আসে।

XS
SM
MD
LG