অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

প্রধানমন্ত্রী পর্যায়ের আলোচনায় ঢাকা-টোকিও সম্পর্ক বাড়বে—পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম


জাপানের প্রধানমন্ত্রী ফুমিও কিশিদা ও বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

জাপানের রাজধানী টোকিওতে আসন্ন প্রধানমন্ত্রী পর্যায়ের বৈঠকের মাধ্যমে বাংলাদেশ-জাপান সম্পর্ক আরও জোরদার হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন বাংলাদেশের পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম।

তিনি একটি ফেসবুক পোস্টে বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জাপানে সরকারি সফরের মধ্যদিয়ে আশা করি দুই দেশের সাধারণ মানুষ উপকৃত হবে। আমরা এই প্রত্যাশা নিয়ে কাজ করে যাচ্ছি’।

জাপানের প্রধানমন্ত্রী ফুমিও কিশিদার আমন্ত্রণে ২৯ নভেম্বর থেকে ১ ডিসেম্বর পর্যন্ত জাপানে সরকারি সফরে যাওয়ার কথা রয়েছে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার।

শাহরিয়ার আলম বলেন, ‘বাংলাদেশ জাপানের রাষ্ট্রদূত ইতো নাওকিকে প্রয়োজনীয় বার্তা পাঠিয়েছে, যা মিডিয়ার সাথে শেয়ার করার প্রয়োজন নেই’।

ফেসবুকে একটি পৃথক নোটে তিনি লিখেছেন, ‘যদি আপনাদের মধ্যে কেউ কেউ ভুলে গিয়ে থাকেন: কূটনৈতিক সম্পর্কের ভিয়েনা কনভেনশন ১৯৬১-এর অনুচ্ছেদ ৪১ ধারা-১ কূটনীতিকদের গ্রহণকারী রাষ্ট্রের আইন ও বিধিবিধানের প্রতি শ্রদ্ধা করতে স্মরণ করিয়ে দেয় এবং দ্ব্যর্থহীনভাবে এটি তাদের দেশের অভ্যন্তরীণ বিষয় হস্তক্ষেপ করা থেকে সীমাবদ্ধ করে।

‘কূটনৈতিক সম্পর্কের ভিয়েনা কনভেনশনের ৪১ অনুচ্ছেদ অনুসারে তাদের বিশেষাধিকার এবং অনাক্রম্যতাগুলোর প্রতি কোনও পূর্বধারণা ছাড়াই এই ধরনের সুযোগ-সুবিধা এবং অনাক্রম্যতা উপভোগ করা সমস্ত ব্যক্তির কর্তব্য হলো প্রাপক রাষ্ট্রের আইন ও প্রবিধানকে সম্মান করা৷

‘তাদেরও সেই রাষ্ট্রের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে হস্তক্ষেপ না করার দায়িত্ব রয়েছে এবং প্রেরক রাষ্ট্র কর্তৃক মিশনে অর্পিত প্রাপক রাষ্ট্রের সঙ্গে সমস্ত দাপ্তরিক ব্যবসা গ্রহনকারী রাষ্ট্রের পররাষ্ট্রবিষয়ক মন্ত্রণালয় বা এই জাতীয় অন্যান্য মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে সম্মত হতে পারে বা তার মাধ্যমে পরিচালিত হবে’।

উল্লেখ্য, সোমবার (১৪ নভেম্বর) জাপানের রাষ্ট্রদূত ইতো নাওকি বলেছিলেন, তিনি ‘ব্যালট বাক্স ভর্তির’ উদাহরণ সম্পর্কে শুনেছেন। কিছু পুলিশ অফিসার আগের রাতে ব্যালট বাক্স ভর্তি করে দিয়েছিলেন যা তিনি অন্য কোনো দেশে কখনো শোনেননি।

সরকার বলেছে, জাপানি পক্ষ গত চার বছরে কোনো দ্বিপক্ষীয় বৈঠকে বা কোনো আলোচনায় এ ধরনের ইস্যু তোলেনি।

এমনকি ২০১৮ সালের নির্বাচনের পরে জাপানি দূতাবাসের দেওয়া বিবৃতিতেও এটি উল্লেখ করা হয়নি, যাতে কেবল সহিংসতার ওপর দৃষ্টি নিবদ্ধ করা হয়েছিল।

XS
SM
MD
LG