অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

নির্বাচন চায় না বিএনপি, সরকার উৎখাত করতে চায়: চট্টগ্রামের জনসভায় শেখ হাসিনা


চট্টগ্রাম নগরীর পলো গ্রাউন্ডে, আওয়ামী লীগের চট্টগ্রাম মহানগর শাখা আয়োজিত এক জনসভায় বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনা। ৪ ডিসেম্বর, ২০২২।

বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, “বিএনপি নির্বাচন চায় না, বরং চায় সরকারকে উৎখাত করে কেউ ক্ষমতায় আসুক, যারা দলটিকে শেষ পর্যন্ত ক্ষমতায় বসিয়ে দেবে।” রবিবার (৪ ডিসেম্বর) চট্টগ্রাম নগরীর পলো গ্রাউন্ডে, আওয়ামী লীগের চট্টগ্রাম মহানগর শাখা আয়োজিত এক জনসভায় শেখ হাসিনা একথা বলেন।

আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনা বলেন, “তারা নির্বাচন চায় না। তারা বরং সরকারকে ক্ষমতাচ্যুত করে ক্ষমতায় আসতে চায়। তারা চায় তাদেরকে নাগরদোলা বা পালকিতে করে নিয়ে এসে কেউ অফিসে বসাবে। এটা তাদের আশা।” শেখ হাসিনা আরও বলেন, “তারা জানে নির্বাচন হলে জনগণ তাদের ভোট দেবে না। তারা (বিএনপি) জনগণের কথা চিন্তা করে না। আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় এলে, আমরা জনগণের জন্য কাজ করব।”

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, “একদিন খালেদা জিয়া ও তারেক জিয়াকে জনগণের কাছে জবাব দিতে হবে। কেন তারা অগ্নিসংযোগের মতো সহিংসতা করে মানুষকে পুড়িয়ে হত্যা করেছে। জনগণ একদিন এর হিসাব নেবে।”

আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা, ১০ ডিসেম্বর-কে চূড়ান্ত বিভাগীয় সমাবেশের তারিখ হিসেবে বেছে নেওয়ার জন্য বিএনপির সমালোচনা করেন। তিনি বলেন, “পাকিস্তানি হানাদার বাহিনী ১৯৭১ সালের ১০ ডিসেম্বর থেকে বুদ্ধিজীবীদের হত্যা শুরু করেছিল। দুর্ভাগ্যবশত, এই ১০ ডিসেম্বর বিএনপির জন্য সবচেয়ে প্রিয় তারিখ। তারা হয়তো ১০ ডিসেম্বরেই ঢাকা শহর দখল করে, আওয়ামী লীগ সরকারকে ক্ষমতাচ্যুত করতে চায়।”

শেখ হাসিনা বলেন, “তারা ভোটের মাধ্যমে ক্ষমতায় যেতে চায় না। তারা মনে করেছে, জিয়াউর রহমান ক্ষমতা দখল করে জাতির পিতাকে হত্যা এবং সংবিধান ও সেনা বিধি লঙ্ঘন করে যেভাবে ক্ষমতায় গিয়েছিল, তারাও সেভাবে ক্ষমতায় যাবে। তারা গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়া পছন্দ করে না।”

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, “গণতান্ত্রিক ধারা অব্যাহত রাখার সুবাদে, বাংলাদেশ ব্যাপক উন্নয়ন করেছে এবং এগিয়ে যাচ্ছে।” অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী ২৯টি উন্নয়ন প্রকল্পের উদ্বোধন করেন এবং ছয়টি প্রস্তাবিত উন্নয়ন প্রকল্পের ভিত্তিপ্রস্তর উন্মোচন করেন।

XS
SM
MD
LG