অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

ঢাকা ওয়াসার এমডি’র বিরুদ্ধে দুদকের অনুসন্ধান অগ্রগতি জানতে চেয়েছেন হাইকোর্ট


বাংলাদেশ হাইকোর্ট

ঢাকা পানি সরবরাহ ও পয়ঃনিষ্কাশন কর্তৃপক্ষের (ওয়াসা) ব্যবস্থাপনা পরিচালক তাকসিম এ খানের বিরুদ্ধে চলমান অনুসন্ধানের হালনাগাদ প্রতিবেদন মঙ্গলবার (৬ ডিসেম্বর) জমা দিতে দুর্নীতি দমন কমিশনকে (দুদক) নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। সোমবার (৫ ডিসেম্বর) ২০০৯ সাল থেকে ঢাকা ওয়াসার এমডি হিসেবে তাকসিম-এর নিয়োগের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে করা এক রিট আবেদনের শুনানি শেষে, বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি খিজির হায়াত এ আদেশ দেন।

দুদকের আইনজীবী অ্যাডভোকেট খুরশীদ আলম জানান যে মঙ্গলবার তিনি তদন্তের অগ্রগতি সম্পর্কে আদালতকে অবহিত করবেন। আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের সাবেক প্রসিকিউটর, ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমন ওয়াসার এমডি হিসেবে তাকসিম-এর নিয়োগের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে নিয়োগে ত্রুটিপূর্ণ প্রক্রিয়ার অভিযোগ এনে রিটটি করেন। রিট আবেদনে স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় (এলজিআরডি) সচিব, জনপ্রশাসন সচিবসহ সাত কর্মকর্তাকে বিবাদী করা হয়।

ব্যারিস্টার সুমন বলেন, “তাকসিম ২০০৯ সাল থেকে গত ১৩ বছর ধরে ঢাকা ওয়াসার এমডি হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। তার মেয়াদে প্রতি ইউনিট পানির দাম ৬ টাকা থেকে বাড়িয়ে ১৫ টাকা করেছেন। তার বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ থাকলেও তিনি তার পদে বহাল রয়েছেন।” তার নিয়োগ প্রক্রিয়া তদন্তের প্রয়োজনীয়তা দেখা দেওয়ায় রিট পিটিশন দাখিল করা হয় বলে জানান তিনি।

সুমন বলেন, “২০০৯ সালে তিন বছরের চুক্তিভিত্তিক নিয়োগের পর, ঢাকা ওয়াসার এমডি হিসেবে তাকসিম-এর মেয়াদ তিনবার বাড়ানো হয়েছে।”

XS
SM
MD
LG