অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

বাংলাদেশের ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনা
বাংলাদেশের ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনা

টানা চতুর্থবারের মত সরকার গঠন করতে চলেছে আওয়ামী লীগ

২১:১৫ ৮.১.২০২৪

আমাদের লাইভ ব্লগ এখানেই শেষ হচ্ছে। নির্বাচনের আরও খবরের জন্য চোখ রাখুন আমাদের ওয়াবসাইট ও সোশ্যাল মিডিয়ার পাতায়। আমাদের সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদ।

১৯:০১ ৮.১.২০২৪

বাংলাদেশ অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে: প্রধানমন্ত্রী

সংবাদ সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা
সংবাদ সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, রবিবারের সাধারণ নির্বাচনের মাধ্যমে বাংলাদেশ সফলতার সঙ্গে অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে।

তিনি বলেন, "আপনারা এসে দেখেছেন এবং আমাদের দেশের মানুষ কীভাবে ভোট দেয় তার সাক্ষী হয়েছেন। নির্বাচন অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ হতে পারে এমন দৃষ্টান্ত আমরা স্থাপন করেছি।"

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন উপলক্ষে সোমবার (৮ জানুয়ারি) গণভবনে দেশি-বিদেশি সাংবাদিক ও নির্বাচন পর্যবেক্ষকদের সঙ্গে মত বিনিময়কালে তিনি এ কথা বলেন।

শেখ হাসিনা বলেন, দেশের জনগণ স্বতঃস্ফূর্তভাবে ভোট দিয়ে তার দলকে নির্বাচিত করেছে। "আপনারা দেখেছেন, নির্বাচন সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করতে আমরা সব ধরনের ব্যবস্থা নিয়েছি।"

আওয়ামী লীগ সভাপতি বলেন, তিনি দীর্ঘদিন ধরে জনগণের ভোটাধিকার প্রতিষ্ঠার জন্য সংগ্রাম করে যাচ্ছেন।

বিএনপির দিকে ইঙ্গিত করে শেখ হাসিনা বলেন, "একটি দল নির্বাচনে অংশ নেয়নি কারণ তারা সরাসরি নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে ভয় পায়।"

ভারতের টেলিগ্রাফের সাংবাদিক দেভাদ্বীপ পুরোহিতের বিরোধী দল সম্পর্কিত এক প্রশ্নের জবাবে, শেখ হাসিনা বলেন, "আপনি কি চান আমি একটি বিরোধী দল গঠন করি? আমি তা করতে পারি? আমি নিজেও বিরোধী দলে ছিলাম দীর্ঘ সময়। আমরা আমাদের দল গঠন করেছি। বিরোধীদেরও তা করতে হবে। আপনি যদি তা করতে ব্যর্থ হন, তাহলে তার জন্য কে দায়ী?"

ইউএনবি

১৮:৪৮ ৮.১.২০২৪

দ্বাদশ সংসদে কমছে আওয়ামী লীগের জোট শরিক ও মিত্রদের সংসদ সদস্য

এই নির্বাচনে নৌকা প্রতীক নিয়ে জয়ী হয়েছেন ওয়ার্কাস পার্টির রাশেদ খান মেনন।
এই নির্বাচনে নৌকা প্রতীক নিয়ে জয়ী হয়েছেন ওয়ার্কাস পার্টির রাশেদ খান মেনন।

আসন সমঝোতা করে দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনে অংশ নেয় আওয়ামী লীগের শরিক দল ও মিত্ররা।

সেই অনুযায়ী শরিক দল ও মিত্রদের ৩২ টি আসন ছাড় দিয়ে দলটি।

আবার কয়েকটি আসনে শরিকরা নিজের দলীয় মার্কা আওয়ামী লীগের প্রতীক নৌকা নিয়ে নির্বাচন নেয়।

কিন্তু তাতেও কয়েকজন শরিক নেতা নির্বাচনী বৈতরণী পার হতে পারেনি।

আওয়ামী লীগের স্বতন্ত্র প্রার্থীদের কাজ পরাজয় বরণ করে দিতে হয়েছে।

ফলে, আগামী সংসদে সরকার দলীয় জোটের শরিক ও মিত্রদের আসন কমছে।

১৪ দলের শরিকদের মধ্যে ওয়ার্কার্স পার্টি দুটি, জাসদ তিনটি ও জাতীয় পার্টিকে (জেপি) একটিসহ ৬ টি আসন ছেড়ে দেয় আওয়ামী লীগ। বগুড়া-৪, রাজশাহী-২, বরিশাল-২, পিরোজপুর-২ এবং লক্ষ্মীপুর-৪ আসন থেকে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী প্রত্যাহার করে নেয় দলটি।

কিন্তু নির্বাচনে ওই আসনগুলোতে আওয়ামী লীগের স্বতন্ত্র প্রার্থীরা নির্বাচনে থেকে যায়।

আর কুষ্টিয়া-২ আসনে আওয়ামী লীগ নৌকার প্রার্থী না দিয়ে খালি রাখা হয়।

ছেড়ে দেওয়া আসনগুলোর মধ্যে কুষ্টিয়া-২ আসন থেকে নৌকা প্রতীকে প্রার্থী হয় জাসদের সভাপতি হাসানুল হক ইনু।

নির্বাচনে তিনি স্বতন্ত্র প্রার্থী মিরপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি কামারুল আরেফিনের কাছে পরাজিত হন।

এই আসনে একাদশ সংসদের সংসদ সদস্য ইনু।

লক্ষীপুর-৪ আসন স্বতন্ত্র প্রার্থী জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. আব্দুল্লাহর কাছে পরাজয় বরণ করেন নৌকা প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করা জাসদের আরেক প্রার্থী মোশাররফ হোসেন।

আব্দুল্লাহ ২০১৪ সালে এই আসনের সংসদ সদস্য ছিলেন।

জোটের আরেক শরিক দল জাতীয় পার্টি জেপির চেয়ারম্যান ও ৬ বারের সংসদ সদস্য আনোয়ার হোসেন মঞ্জু নৌকা প্রতীকে নির্বাচন করে পিরোজপুর-২ আসনে।

তিনি পরাজিত হন জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মহিউদ্দিন মহারাজের কাছে।

মহারাজ এক সময় আনোয়ার হোসেন মঞ্জু এপিস ছিলেন।

রাজশাহী-২ আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি শফিকুর রহমান বাদশার কাছে পরাজিত হন টানা তিনবারের সংসদ সদস্য ও ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক ফজলে হোসেন বাদশা।

তিনিও নৌকা প্রতীক নিয়ে নির্বাচনে অংশ নেয়।

তবে, জোটের শরিক দলে ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেনন নৌকা প্রতীক নিয়ে বরিশাল-২ এবং বগুড়া-৪ আসনে নৌকা প্রতীক নিয়ে জাসদ নেতা এ কে এম রেজাউল করিম নির্বাচিত হয়েছেন।

একাদশ সংসদে ১৪ দলীয় জোটের শরিকদের সরাসরি ভোটের ৭ জন সংসদ সদস্য রয়েছে।

আর আগামী সংসদে মাত্র ২ জন নির্বাচিত হয়েছেন। তার বাইরে আওয়ামী লীগের মিত্র জাতীয় পার্টিকে ২৬ টি আসন ছাড় দেওয়া হয়। কিন্তু দলটি মাত্র ১১ টি আসনে জয়লাভ করে।

বাকিগুলোতে আওয়ামী লীগের স্বতন্ত্রপ্রার্থীদের কাছে পরাজিত হয়। দলটির বর্তমান সংসদে সরাসরি ভোটের ২২ জন সংসদ সদস্য রয়েছে। আগামী সংসদে সেটা ১১ জনে গিয়ে দাড়াচ্ছে।

১৬:০২ ৮.১.২০২৪

সিইসি বললেন, ভোট পড়েছে ৪১.৮ শতাংশ

প্রধান নির্বাচন কমিশনার কাজি হাবিবুল আওয়াল।
প্রধান নির্বাচন কমিশনার কাজি হাবিবুল আওয়াল।

প্রধান নির্বাচন কমিশনার বলেছেন, চূড়ান্ত হিসেবে রবিবারের নির্বাচনে ভোট পড়েছে ৪১.৮ শতাংশ।

জাপান থেকে আসা পর্যবেক্ষক দলের সঙ্গে বৈঠক শেষে কাজি হাবিবুল আওয়াল সাংবাদিকদের বলেন, এই পরিসংখ্যান কেউ চ্যালেঞ্জ করতে চাইলে নির্বাচন কমিশন সেটা খতিয়ে দেখতে প্রস্তুত।

আরও লোড করুন

XS
SM
MD
LG