অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

গত তিন মাসে দেশে বিচার বহির্ভূত হত্যাকাণ্ড উল্লেখযোগ্য ভাবে কমেছে


বাংলাদেশের অন্যতম মানবাধিকার সংগঠন আইন ও সালিশ কেন্দ্র জানিয়েছে গত তিন মাসে দেশে বিচার বহির্ভূত হত্যাকাণ্ড উল্লেখযোগ্য ভাবে কমেছে।

বৃহস্পতিবার এক ভার্চুয়াল আলোচনায় সংস্থাটির সহকারী সমন্বয়ক তামান্না হক এ তথ্য জানিয়ে বলেন গত আগস্ট মাসী থেকে এ যাবত প্রায় তিন মাসে নয় জন বিচার বহির্ভূত হত্যার শিকার হয়েছেন। তিনি বলেন গত ৩১শে জুলাই অবসরপ্রাপ্ত সেনা কর্মকর্তা মেজর সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ পুলিশের গুলিতে নিহত হওয়ার পর বিচার বহির্ভূত হত্যা উল্লেখযোগ্য ভাবে কমে গেছে। চলতি বছরের ২৫শে অক্টোবর পর্যন্ত মোট ২১৯ জন আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর হেফাজতে কিংবা কথিত বন্দুক যুদ্ধে নিহত হয়েছেন বলে উল্লেখ কররে তামান্না হক বলেন এর মধ্যে জুলাই মাসেই নিহত হয়েছেন ৫০ জন। তিনি বলেন এ সকল হত্যাকাণ্ডের তথ্য গণমাধ্যমে প্রকাশিত সংবাদ বিশ্লেষণ করে এবং সংস্থাটির নিজস্ব পরিসংখ্যানের ভিত্তিতে জানা গেছে। আলোচনায় অংশ নিয়ে জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারপার্সন নাসিমা বেগম বলেন কোনও বিবেকবান ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠান বিচার বহির্ভূত হত্যা সমর্থন করতে পারে না।

বাংলাদেশে বিচার বহির্ভূত হত্যাকাণ্ডের বিষয়ে বিশিষ্ট মানবাধিকার কর্মী এডভোকেট জিয়া হাবিবের প্রতিক্রিয়া জানতে চাইলে তিনি বলেন এ ধরনের হত্যাকাণ্ড সম্পূর্ণভাবে বন্ধ করা উচিৎ।

উল্লেখ্য, সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্র সিনেটের বৈদেশিক সম্পর্ক বিষয়ক কমিটির শীর্ষ সদস্য ডেমোক্র্যাটিক দলীয় সিনেটার বব মেনেনডেজ এবং রিপাবলিকান দলীয় সিনেটার টড ইয়াং এর নেতৃত্বাধীন সিনেটের আটজন সদস্য, বাংলাদেশের র‍্যাব এর সিনিয়র কমান্ডারদের উপর নিষেধাজ্ঞা জারির জন্য ট্রাম্প প্রশাসনের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন। পররাষ্ট্র মন্ত্রী মাইক পম্পেও এবং অর্থমন্ত্রী স্টিভেন মানুচিনের কাছে লেখা চিঠিতে সিনেটাররা অভিযোগ করেছেন ২০১৫ সাল থেকে র‍্যাব ৪০০ এর বেশি লোককে বিচার-বহির্ভূত ভাবে হত্যা করেছে। তাঁরা ওই চিঠিতে র‍্যাব এর সিনিয়র কমান্ডারদের লক্ষ্য করে প্রযোজ্য আইনের অধীনে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করার জন্য আহ্বান জানান।

please wait

No media source currently available

0:00 0:03:03 0:00
সরাসরি লিংক


XS
SM
MD
LG