অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

মিসর থেকে ঢাকাগামী কার্গো বিমানে পেঁয়াজ তোলা হয়েছে: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা


পেঁয়াজ এখনো নিয়ন্ত্রণহীন। শনিবার ঢাকায় এক কেজি পেঁয়াজ বিক্রি হয়েছে ২৩০ টাকা থেকে ২৬০ টাকায়। গ্রামে-গঞ্জে ৩০০ টাকায় উঠেছে। কোথাও কোথাও পেঁয়াজের দেখা পাচ্ছেন না ক্রেতারা। অথচ এক সপ্তাহ আগে ১১০ থেকে ১১৫ টাকায় বিক্রি হতো। বাংলাদেশে পেঁয়াজের চাহিদা রয়েছে ২৪ লাখ টন। সেখানে উৎপাদন হয় ২৩ লাখ টন। নষ্ট হয় ৮ থেকে ১০ লাখ টন। ঘাটতি মোকাবেলায় ভারতসহ বেশ কয়েকটি দেশ থেকে ১১ লাখ টন আমদানি করা হয়।

এবার ভারত নিজেই সংকটে। গত ২৯শে সেপ্টেম্বর হঠাৎ করেই ভারত পেঁয়াজ রফতানি বন্ধের ঘোষণা দেয়। এরপর থেকে পেঁয়াজের দাম লাগামহীন হয়ে পড়ে। সরকারিভাবে পেঁয়াজ আমদানির চেষ্টা ব্যর্থ হওয়ার পর এক শ্রেণীর ব্যবসায়ী সুযোগ নিয়ে দাম বাড়িয়ে দেয়। বৈশ্বিক ভাবেই পেঁয়াজের বাজার অনেকটা ঊর্ধ্বমুখী। গত এক বছরে বিশ্ববাজারে পণ্যটির দাম বেড়েছে গড়ে সাড়ে ১১ শতাংশ। এই যখন অবস্থা তখন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, দুঃশ্চিন্তার কিছু নেই। মিসর থেকে ঢাকাগামী কার্গো বিমানে পেঁয়াজ উঠে গেছে।

সাধারণ মানুষ পেঁয়াজ নিয়ে বিক্ষুব্ধ। অতি দামি পেঁয়াজ এখন বিয়ে-শাদীর অনুষ্ঠানেও উপহার হিসেবে স্বীকৃতি পেয়েছে। শনিবার সন্ধ্যায় রাজধানীর হাট-বাজার ঘুরে যে চিত্র পাওয়া গেল তাতে বিদেশ থেকে পেঁয়াজ আসার ঘোষণায় কোন প্রভাব নেই। ঢাকাসহ দেশের বিভিন্নস্থানে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী অভিযান চালাচ্ছে। তাৎক্ষণিক কোন ফল আসেনি। বরং কোন কোন ক্ষেত্রে পেঁয়াজ উধাও হয়ে গেছে। কাওরান বাজারে একজন ক্রেতা বললেন, পেঁয়াজের অস্বাভাবিক দামে সব হিসেব-নিকেষ পাল্টে গেছে।

ওদিকে, চালের দামেও ঊর্ধ্বগতি। গত এক সপ্তাহে চালের দাম কেজিতে বেড়েছে ৫ থেকে ৬ টাকা। চাল ব্যবসায়ীরা বলছেন, সরবরাহ কম। তাই দাম বাড়ছে।

please wait

No media source currently available

0:00 0:02:05 0:00
সরাসরি লিংক



XS
SM
MD
LG