অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

স্যার ফজলে হাসান আবেদের মৃত্যুতে দেশ-বিদেশের গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি ও সংগঠনের শোক প্রকাশ


বিশ্বের সবচেয়ে বড় এনজিও ব্র্যাকের প্রতিষ্ঠাতা স্যার ফজলে হাসান আবেদের মৃত্যুতে দেশ-বিদেশের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি এবং সংগঠন শোক প্রকাশ করেছেন। বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদ এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পৃথক পৃথক শোকবার্তায় আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে তাঁর অসামান্য অবদানের কথা শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করেন।

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, স্যার ফজলে হাসান আবেদের মতো মানুষ পৃথিবীর বুকে সবসময় আসেন না, তাঁরা যখন আসেন সমাজকে বদলে দেন।

এছাড়াও দেশের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠান ফজলে হাসান আবেদের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন। নোবেল জয়ী ড. মুহাম্মদ ইউনূস সংবাদপত্রে প্রেরিত এক শোক নিবন্ধে বলেছেন, সমাজের এমন কোন পরত নেই যেখানে আবেদের কর্মকান্ডের বাতাস লাগেনি। বাংলাদেশে সমাজের যে বিপুল পরিবর্তন হয়েছে তিনি তার প্রধান রূপকার।


বিশ্বের বেশ কয়েকজন গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিত্ব ফজলে হাসান আবেদের মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেছেন। যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক প্রেসিডেন্ট বিল ক্লিনটন তাঁর প্রেরিত বার্তায় বলেছেন, ফজলে হাসান আবেদ প্রমাণ করে গেছেন স্বপ্ন দেখলে তা বাস্তবায়নের মাধ্যমে বিশ্বকে বদলানো যায়।

মাইক্রোসফটের প্রতিষ্ঠাতা বিল গেটস শোকবার্তায় বলেছেন, স্যার ফজলে হাসান আবেদ বিশ্বের খুবই কমসংখ্যক মানুষের একজন- যার কাজে বিশ্বের কোটি মানুষের স্বাস্থ্যখাতে ইতিবাচক পরিবর্তন এসেছে।

শুক্রবার রাতে ফজলে হাসান আবেদের মৃত্যু সংবাদ ছড়িয়ে পড়ার পরপরই বাংলাদেশের অসংখ্য গণমান্য ব্যক্তিবর্গ ও স্যার ফজলে হাসান আবেদের শুভাকাঙ্খীরা এ্যপোলো হাসপাতালে ছুটে যান। এ সময় বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. একে আব্দুল মোমেন, বিএনপি নেতা আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী তাদের প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেন। ব্র্যাক বোর্ডের চেয়ারপারসন, সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা এবং অর্থনীতিবিদ ড. হোসেন জিল্লুর রহমান তার প্রতিক্রিয়ায় ব্র্যাকের প্রতিষ্ঠাতা স্যার ফজলে হাসান আবেদকে এক অনুকরণীয় ব্যক্তিত্ব বলে উল্লেখ করেছেন।

শুক্রবার রাতেই ব্র্যাক এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, এই প্রতিষ্ঠানে ভবিষ্যৎ কর্মকান্ডে কোন জটিলতা থাকবে না। স্যার ফজলে হাসান আবেদ আগেই ব্র্যাকের বিস্তারিত ভবিষ্যৎ কর্ম-পরিকল্পনা ও কর্মপদ্ধতি নির্ধারণ করে দিয়েছেন।

please wait

No media source currently available

0:00 0:02:32 0:00


XS
SM
MD
LG