অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

কক্সবাজারের রোহিঙ্গা ক্যাম্পে সক্রিয় মিয়ানমারের গুপ্তচর


বাংলাদেশের রোহিঙ্গা ক্যাম্পে মিয়ানমারের গুপ্তচর আকতার আলম

বেশকিছুদিন ধরে বিভিন্ন ক্যাম্পে রোহিঙ্গাদের উপর হামলা করছে দুস্কৃতিকারীরা। ক্যাম্পের পরিস্থিতি ঘোলাটে করতে মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে সংঘবদ্ধ অপরাধী চক্র। তাদের কর্মকাণ্ডে ভীত সাধারণ রোহিঙ্গারা। কুতুপালং বর্ধিত ক্যাম্পে হামলায় আহত রোহিঙ্গারা বলেন, ক্যাম্পে কিছু খারাপ রোহিঙ্গা নানা অপরাধ কর্মকাণ্ড করে বেড়াচ্ছে। কিছু এনজিও সহায়তা করছে অপরাধীদের।

অস্বাভাবিক কিছু হত্যাকাণ্ড, অপহরণ ও অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় ধুম্রজাল তৈরি হয়েছে জনমনে। বিশেষ করে আরিফ উল্লাহ হত্যাকান্ড এবং রোহিঙ্গা ৩ নেতাসহ ২৫টি হত্যাকাণ্ডের পর ঘনিভূত হয়েছে সন্দেহ। থানাগুলোতে বেড়েই চলেছে রোহিঙ্গা সংক্রান্ত অভিযোগ।

কক্সবাজারের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ ইকবাল হোসাইন বলেন, রোহিঙ্গা সংক্রান্ত প্রতিটি অভিযোগকে গুরুত্বের সাথে দেখা হচ্ছে।

সাধারণ রোহিঙ্গারা বলছেন, ক্যাম্পে উৎপতে আছে মিয়ানমারের অনেক গুপ্তচর। গুপ্তচর আকতার আলম ও ২৭ হিন্দুকে ফিরিয়ে নিয়ে গেছে মিয়ানমার। তবে এখনও ক্যাম্পে থেকে কলকাঠি নাড়ছে অনেক গুপ্তচর। অভিযোগের তীর ক্যাম্পে গড়ে উঠা রাখাইন স্বর্ণকারবারীদের দিকেও।

তৃতীয় কোন শক্তি রোহিঙ্গা ক্যাম্পে মাথাচাড়া দিয়ে উঠলে পরিস্থিতি হতে পারে ভয়াবহ। গোয়েন্দা তৎপরতার পাশাপাশি প্রশাসনিক কর্মকাণ্ড বাড়ানোর পরামর্শ সচেতন মহলের।

কক্সবাজারের মানবাধিকার কর্মী ও সৈয়দ মোহাম্মদ আনোয়ার হোসেন বলেন, ক্যাম্পে সেনাবাহিনী এবং স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের সম্পৃক্ততা বাড়ানো উচিত।

সচেতন রোহিঙ্গারা বলছেন, মিয়ানমার থেকে পাঠানো প্রত্যাবাসন তালিকায় রয়েছে অনেক গুপ্তচর পরিবারের নাম। এছাড়া অপহরণ, অগ্নিকাণ্ড এবং হত্যাকান্ডের ঘটনাগুলো তদন্ত করলে বেরিয়ে আসবে চাঞ্চল্যকর তথ্য।

please wait

No media source currently available

0:00 0:02:49 0:00

XS
SM
MD
LG