অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

বাংলাদেশে করোনার মুখে খাওয়ার ওষুধ মলনুপিরাভির বাজারজাতকরণ শুরু


করোনার মুখে খাওয়ার ওষুধ মলনুপিরাভির। (ছবি- বেক্সিমকো)

করোনার মুখে খাওয়ার ওষুধ মলনুপিরাভির জরুরিভিত্তিতে বাংলাদেশে বাজারজাতকরণ শুরু হয়েছে। শীর্ষস্থানীয় ওষুধ কোম্পানি বেক্সিমকো ফার্মা ওষুধটি বাজারজাতকরণ শুরু করেছে। ওষুধ প্রশাসন অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মেজর জেনারেল মাহবুবুর রহমান মঙ্গলবার এক প্রেস ব্রিফিংয়ে এ তথ্য জানান।

তিনি জানান, সোমবার বেক্সিমকো এবং মঙ্গলবার এসকেএফ ও স্কয়ার ফার্মাসিউটিক্যালস ওষুধটি তৈরি ও বাজারজাতের অনুমোদন পেয়েছে। মাহবুবুর রহমান বলেন, এই প্রথম মুখে খাওয়ার কোনো অ্যান্টিভাইরাল দেশে উৎপাদন ও বাজারজাত হচ্ছে। আমরা মনে করি, এই ওষুধ করোনাভাইরাস মহামারি দূর করতে ভূমিকা রাখবে।

ওষুধটির জটিল কোনো পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া নেই বলে জানিয়েছেন ওষুধ প্রশাসন অধিদপ্তরের মহাপরিচালক। তিনি বলেন, ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালে স্বাভাবিক কিছু পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া হতে পারে বলে উল্লেখ করা হয়েছে। বাংলাদেশে ১৮ বছরের বেশি বয়সী রোগীরা এই ওষুধ ব্যবহার করতে পারবেন।

তবে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শ ছাড়া কোনো রোগী যাতে এই ওষুধ সেবন না করে সে বিষয়ে সতর্ক থাকার পরামর্শ দিয়েছেন মেজর জেনারেল মো. মাহবুবুর রহমান।

বেক্সিমকো ফার্মাসিউটিক্যালস-এর প্রধান পরিচালন কর্মকর্তা রাব্বুর রেজা জানিয়েছেন, অনুমোদন পাওয়ার পর তারা ওষুধটির বাজারজাত শুরু করেছেন। ইতোমধ্যে কিছু ফার্মেসিতে ওষুধ পাঠানো হয়েছে। তিনি বলেন, গত জুন থেকে ওষুধটি নিয়ে কাজ করছে বেক্সিমকো ফার্মা।

অনুমোদন পাওয়া তিনটি প্রতিষ্ঠানের বাইরে আরো ৭টি প্রতিষ্ঠান ওষুধটি উৎপাদন ও বাজারজাত করতে ওষুধ প্রশাসন অধিদপ্তরে আবেদন করেছে।

প্রতিদিন দুইবেলা চারটি করে আটটি ক্যাপসুল খেতে হবে। এই ওষুধের কোর্স চলবে ৫দিন। ২০০ মিলিগ্রামের প্রতিটি ক্যাপসুলের দাম পড়বে ৫০ টাকা করে। চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী এই ওষুধ খেতে হবে।

গত বৃহস্পতিবার বৃটেনে প্রথম ওষুধটি ব্যবহারের অনুমোদন দেয়া হয়। এ ওষুধ করোনা রোগীর মৃত্যু ও হাসপাতালে ভর্তির হার ৫০ শতাংশ কমাতে পারে। মার্কিন ওষুধ কোম্পানি মার্ক, শার্প অ্যান্ড ডোম এবং রিজব্যাক বায়োথেরাপিউটিক ওষুধটি উৎপাদন করছে। ওষুধটির ওপর পরীক্ষা হয়েছে যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, কানাডা, ফ্রান্স, জার্মানিসহ ১৭টি দেশে। ইউরোপিয়ান মেডিসিন এজেন্সি ও যুক্তরাষ্ট্রের ফুড অ্যান্ড ড্রাগ অ্যাডমিনিস্ট্রেশন (এফডিএ) ওষুধটি অনুমোদন দেয়ার বিষয়টি পর্যালোচনা করছে। বৃটেনের ‘মেডিসিন অ্যান্ড হেলথকেয়ার প্রোডাক্ট রেগুলেটরি এজেন্সি’ বা এমএইচআরএ পরামর্শ দিয়েছে কারও করোনা শনাক্ত হওয়ার পর যত দ্রুত সম্ভব মলনুপিরাভির ওষুধটি খেতে হবে।

XS
SM
MD
LG