অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

চীনের সঙ্গে লড়াইয়ে ভারতের দরকার যুক্তরাষ্ট্রের মতো শক্তিশালী ও ঘনিষ্ঠ মিত্র-মাইক পম্পেও


যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও বলেছেন, চীন ভারতের উত্তর সীমান্তে ৬০ হাজার সৈন্য মোতায়েন করেছে। তাদের সঙ্গে লড়াইয়ে ভারতের দরকার যুক্তরাষ্ট্রের মতো এক শক্তিশালী ও ঘনিষ্ঠ মিত্র, যাতে দুই দেশ কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে চীনের আক্রমনাত্মক অভিসন্ধি বানচাল করে দিতে পারে। গতকাল রেডিও হোস্ট ল্যারি ওকোনরের অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত অতিথি মাইক পম্পেও বলেছেন, ভারত এমনিতেই যুক্তরাষ্ট্রের বন্ধু, তবে চীনের মতো আগ্রাসী দেশের সঙ্গে ভারত একা লড়তে অসুবিধের মুখে পড়বে, তাই যুক্তরাষ্ট্র এই সময়ে তার পাশে দাঁড়াতে চায়। জাপানের টোকিওতে সদ্য সমাপ্ত এক সম্মেলনে যুক্তরাষ্ট্র, জাপান, ভারত ও অস্ট্রেলিয়া একযোগে চীনা আগ্রাসনের বিরুদ্ধে জোটবদ্ধ হওয়ার অঙ্গীকার করেছে। যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্প করোনা আক্রান্ত হয়ে অসুস্থ হয়ে পড়ায় পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে টোকিও থেকে তাড়াতাড়ি দেশে ফিরে যেতে হয়েছে। তবে এ মাসের শেষের দিকে তিনি আবার তাঁর সহকর্মী যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিরক্ষামন্ত্রী মার্ক এসপারকে সঙ্গে নিয়ে ভারত সফরে আসবেন। মোটামুটিভাবে ঠিক রয়েছে যে আগামী ২৬ ও ২৭শে অক্টোবর দিল্লিতে ভারত-যুক্তরাষ্ট্র দ্বিপাক্ষিক বৈঠক বসবে। বৈঠকে যোগ দেবেন যুক্তরাষ্ট্রের বিদেশমন্ত্রী মাইক পম্পেও এবং প্রতিরক্ষামন্ত্রী মার্ক এসপার। তাঁদের সঙ্গে কথা বলবেন ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর ও প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং। ওই সময়ে দুই দেশের মধ্যে সামরিক কৌশলগত নানা বিষয় নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা হওয়ার কথা রয়েছে।

সরাসরি লিংক


XS
SM
MD
LG