অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

বাংলাদেশে টিকা নেয়ার পর যারা আক্রান্ত হয়েছেন তাদের শরীরে ৪ গুণ অ্যান্টিবডি তৈরি হচ্ছে- গবেষণা


বাংলাদেশের রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানের এক গবেষণা রিপোর্ট বলছে, টিকা গ্রহণের পর যারা করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন তাদের শরীরে চারগুণ বেশি অ্যান্টিবডি তৈরি হয়েছে। গত ৭ই ফেব্রুয়ারি থেকে বাংলাদেশে অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা দেয়া শুরু হয়। এরপর আইইডিসিআর ও আইসিডিডিআর,বি যৌথভাবে টিকা গ্রহণকারীদের রক্তে কোভিডের উপস্থিতি নিয়ে একটি গবেষণা পরিচালনা করে। গবেষণায় দেখা যায়, টিকার প্রথম ডোজ গ্রহণের এক মাস পর ৯২ শতাংশ এবং দুই মাস পর ৯৭ শতাংশের শরীরে কোভিড-১৯ অ্যান্টিবডি তৈরি হচ্ছে। শুধু তাই নয়, যারাই টিকা নিয়েছেন তাদের শরীরে অ্যান্টিবডির উপস্থিতি পাওয়া গেছে। আইইডিসিআর ও আইসিডিডিআর,বি জানিয়েছে, ভবিষ্যতে এই গবেষণার জন্য ছয় হাজার ৩০০ জন টিকা গ্রহণকারীর দুই বছর পর্যন্ত অ্যান্টিবডির উপস্থিতিতি পর্যালোচনা করা হবে।

ভারতের পরিস্থিতি ভিন্ন। দ্বিতীয় ডোজ গ্রহণের পরও অনেকেই আক্রান্ত হচ্ছেন। এরমধ্যে বেশিরভাগই ডাক্তার, নার্স ও স্বাস্থ্যকর্মী। ১৩০ কোটি মানুষের দেশে এখন পর্যন্ত মাত্র তিন শতাংশ মানুষকে টিকা দেয়া সম্ভব হয়েছে। দিল্লির বৃহত্তম কোভিড হাসপাতাল লোকনায়েকের চিকিৎসক জয় প্রকাশ নারায়ণ জানান, হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যা বিভাগের ৬০ শতাংশ চিকিৎসক দুই ডোজ গ্রহণের পরও সংক্রমিত হয়েছেন। যুক্তরাষ্ট্রে টিকা নেয়ার পর আক্রান্তের সংখ্যা তুলনামূলকভাবে কম। টিকাদানকারী প্রায় ১০ কোটি মানুষের মধ্যে নয় হাজার ৪৫ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। গবেষকরা বলছেন, বাংলাদেশের পরিস্থিতি অন্য যেকোনো দেশের তুলনায় ভাল। টিকা নেয়ার পর আক্রান্ত হচ্ছেন, তবে সংখ্যায় কম।

সরাসরি লিংক

ওদিকে ভারতে চিকিৎসা নিয়ে সিলেটে ফেরার নয়দিন পর আসমা বেগম নামের একজন মহিলা মারা যান। তাকে নিয়ে সিলেটের প্রশাসন নড়েচড়ে বসেছে। ইতিমধ্যেই মহিলার সংস্পর্শে এসেছিলেন এমন ছয়জনকে নজরদারির মধ্যে রাখা হয়েছে। এদের সবার নমুনা পরীক্ষা করা হবে। আসমা বেগম দীর্ঘদিন কিডনির নানা জটিলতায় ভুগছিলেন। এরপর চিকিৎসার জন্য ভারতে যান। সেখান থেকে ফেরার পর সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। বুধবার দুপুরে তিনি মারা যান। সিলেটের সিভিল সার্জন ডা. প্রেমানন্দ মণ্ডল জানিয়েছেন, আসমা বেগম ভারত থেকে ফিরে করোনা পজিটিভ হয়ে মারা যান। এ কারণে তার সঙ্গে থাকা একজন পুরুষকে বুধবার বিকেল থেকে কোয়ারেন্টিনে নেয়া হয়েছে। এছাড়া চিকিৎসাধীন সময়ে আরও পাঁচজন তার সংস্পর্শে এসেছিলেন। এদের সবার নমুনা পরীক্ষার জন্য ল্যাবে পাঠানো হয়েছে।

চলমান লকডাউন আরও এক সপ্তাহ বাড়তে পারে । জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন বৃহস্পতিবার এটা জানিয়েছেন। ভারতীয় ভ্যারিয়েন্ট যাতে ছড়িয়ে পড়তে না পারে সেজন্যই এই পদক্ষেপ। আগের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ১৬ই মে পর্যন্ত লকডাউন চলার কথা।

গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ৩১ জন। নতুন করে শনাক্ত হয়েছেন এক হাজার ২৯০ জন।

XS
SM
MD
LG